Card image cap
খেলতে খেলতে অটোক্যাড পরিচিতি
Ashraful Haque - 05 Sep 2014

একটু মজা করে করেছি
এখানে শিখতে পারবেন

ভিজিট করুন:  http://need4engineer.com/cad08

In this tutorial you will learn about Autocad User Interface

  1. App menu
  2. new
  3. open
  4. save
  5. print
  6. command bar
  7. snap
  8. osnap
  9. polar
  10. ortho
  11. workspace switch
  12. Control

Card image cap
কংক্রিট এর বিভিন্ন উপাদানের মিশ্রণ অনুপাত
engr.tushar - 04 Sep 2014

প্রতি ঘণ গজ বা ২৭ ঘণফুট কংক্রিট তৈরি করতে যে পরিমান মালামাল লাগে
৩০০০ পি.এস.আই এর জন্য

  1. সিমেন্ট ৫১৭ পাউন্ড
  2. ১৫৬০ পাউন্ড
  3. ১৬০০ পাউন্ড পাথর
  4. ৩২-৩৪ গ্যালণ পানি

৪০০০ পি.এস.আই এর জন্য

  1. সিমেন্ট ৬১১ পাউন্ড
  2. ১৪৫০ পাউন্ড
  3. ১৬০০ পাউন্ড পাথর
  4. ৩৩-৩৫ গ্যালণ পানি
তবে কংক্রিট মিক্স ডিজাইন করা ভাল। এই জন্য এখানে ক্লিক করুণ ; http://need4engineer.com/n4u/mixdesign

Card image cap
Auto CAD Practice tutorial
Ashraful Haque - 02 Sep 2014

AutoCAD ছাড়াই শিখুন অটোক্যাড
1. Unit Setup http://need4engineer.com/cad_unit

1. Sample project http://need4engineer.com/cad

Card image cap
গ্র্যাব রেইল
engr.tushar - 01 Sep 2014

main-bath-grab-bars

গ্র্যাব রেইল বা গ্র্যব বার বেশ উপকারি ও দরকারি একটি বাথরুম এক্সেসরিজ

আমাদের দেশে এর ব্যবহার নেই বললেই চলে। কিন্তু বিদেশে বেশ ব্যবহার হয় এটি। মুলত বয়স্ক মানুষদের জন্য অথবা দুর্বল মানুষদের জন্য। বসা থেকে থেকে উঠে দাড়ানো বা দাড়ানো থেকে বসা অবস্থায় যাওয়ার জন্য এই গ্র্যাব রেইল ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

কোথায় ব্যবহার হয় ?

এটি টয়লেটে ব্যবহার করা হয়। ফ্লোর এর সাথে  অথবা দেয়ালের সাথে এটি লাগানো হয়। ব্যান্ডের গ্র্যাব রেইলও পাওয়া যায়। যেমন ধরুন  কোহলার অথবা গ্রোহি কোম্পানিরও এই গ্র্যাব বার আছে।

কমোড, বাথটাব ইত্যাদির পাশে সাধারণত এই বার ব্যবহার করা হয়।

আমাদের বৃদ্ধ বাবা-মা, দাদা-দাদি-নানা-নানি সহ সকল বৃদ্ধদের কথা চিন্তা করে আমরাও এই গ্র্যাব বার ব্যবহার করতে পারি বা করা উচিত। 

বৃদ্ধদের প্রতি সম্মান ও দ্বায়িত্ব প্রদর্শণ করা আমাদের কর্তব্য

 

Card image cap
রডের এস্টিমেট ( কাছাকাছি )
engr.tushar - 13 Jun 2014

প্রতি ঘণমিটারে সাধারণত কত কেজি রড বা লোহা লাগে তার একটি তালিকা দেওয়া হলো। আশা করি এটা আপনাদের এস্টিমেটের কাজে লাগবে। ডিজাইনের আগে মোটোমোটি (+-50%) এস্টিমেটের জন্য তালিকাটি খুব কাজের

ধরণ
কেজি/ঘণমিটার
 বেইজ
৯০-১৩০
বীম২০৫০-৩০৫০ 
ক্যাপ বীম১৩০৫ 
কলাম২০০-৪০৫০ 
গ্রাউন্ড বীম২৩০-৩৩০ 
ফুটিং৭০-১০০ 
পাইল ক্যাপ১১০-১০৫০ 
প্লেট স্ল্যাব৯০৫-১৩০৫ 
রেফট বা ম্যাট১১০৫ 
রিটেইনিং ওয়াল১১০-১০৫০ 
রিবড ফ্লোর৮০-১২০ 
ওয়ান ওয়ে স্ল্যাব৭০৫-১২০৫ 
টু-ওয়ে স্ল্যাব৬৭-১৩০৫ 
সিড়ি১৩০-১৭০ 
টাই বীম১৩০-১৭০ 
Transfer slabs ১০৫০ 
সাধারণ দেয়াল৭০-১০০ 
বাতাসের প্রেসারের দেয়াল৯০-১০৫০ 

নোট: মাটির নিচে, আবহাওয়ার সাথে সরাসরি থাকলে নিচের মত করে বাড়াতে হবে:

বীম +১০০%; কলাম +১৫%; দেয়াল +৫০%

Card image cap
ক্লোরিনেটেড পলিভিনাইল ক্লোরাইড (সি.পি.ভি.সি)
engr.tushar - 04 Jun 2014
ক্লোরিনেটেড পলিভিনাইল ক্লোরাইড (সি.পি.ভি.সি)
ধরণথার্মোপ্লাস্টিক
ঘনত্ব1.56 g/cm3
মডুলাস অফ ইলাস্টিসিটি (E)2.9-3.4 GPa
টেনসাইল স্ট্রেন্থ (σt)50-80 MPa
ইলংগেশন20-40%
নচ টেষ্ট (আচড়)2-5 kJ/m2
গ্লাস ট্রানজিশন তাপমাত্রা)106 - 115 °C
গলনাঙ্ক395 °C
ভিকাট বি106 to 115 °C
থার্মাল কন্ডাকটিভিটি (k)0.16 W/(m·K)
লিনিয়ার এক্সপানশন কো-ইফিসিয়েন্ট (α)8 x 10−5 /K
স্পেসিফিক তাপ (c)0.9 kJ/(kg·K)
পানি শোষন (ASTM)0.04-0.4

Card image cap
Emarot Solution
engr.tushar - 15 May 2014
প্রতিষ্ঠান: 
Emarot Solution
ঠিকানা: 

Tarabonear Chora, Cox's Bazar, বাংলাদেশ।

ফোন/মোবাইল: 
01815 674 931,01751 680 078
স্থান / location: 
ধরণ বা প্রকার: 

Card image cap
জেনে নিন মিনিমাম পুরুত্ব (ডিফ্লেকশন হিসাব না করা হলে)
engr.tushar - 14 May 2014

ওয়ান ওয়ে স্ল্যাব

১. সিম্পলী সাপোর্ট =  স্প্যান / ২০

২. একদিকে কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ২৪

৩. দুই দিকেই কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ২৮

৩. ক্যান্টিলিভার =  স্প্যান / ১০

 

বীম

১. সিম্পলী সাপোর্ট =  স্প্যান / ১৬

২. একদিকে কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ১৮.৫

৩. দুই দিকেই কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ২১

৩. ক্যান্টিলিভার =  স্প্যান / ৮

 

উল্লেখ্য :

উপরের হিসাবে ধরা হয়েছে যে কংক্রিট সাধারণ ওজনের কংক্রিট ১৪৫ পাউন্ড/ঘণফুট এবং রিবার ৬০ গ্রেড

ক) যদি লাইট-কংক্রিট হয় ( ৯০-১১৫ পাউন্ড/ঘণফুট) তাহলে উপরের সুত্র থেকে প্রাপ্ত পুরুত্বকে (১.৬৫-০.০০৫ X কংক্রিট একক ওজন) দিয়ে গুণ করতে হবে। 

তবে গুণ করার এই ফ্যাক্ট ১.০৯ এর নিচে হতে পারবে না। কংক্রিট এর একক ওজন ৯০ থেকে ১১৫ এর মধ্যে।

খ) যদি রিবার গ্রেড ৬০ থেকে অন্য হয় তাহলে (০.৪+ রিবার পি.এস.আই/১০০,০০০)

 

উদাহরণ:

বীমের স্প্যাণ ৩৭ ফুট, কংক্রিট এর একক ওজন ১১০ এবং একদিকে কন্টিনিউয়াস। রিবার ব্যবহার করা হযেছে ৮০ গ্রেড, বিমের পুরুত্ব বা থীকনেস কমপক্ষে কত ??

১. সাধারণ কংক্রিট ও ৬০ গ্রেডের জন্য উচ্চতা ৩৭X১২/১৮.৫ = ২৪ ইঞ্চ

ক) ফ্যাক্টর = ১.৬৫-০.০০৫ X ১১০ = ১.১

খ) ফ্যাক্টর = ০.৪+৮০,০০০/১০০,০০০ = ১.২

সুতরাং উচ্চতা হবে ২৪ X ১.১ X ১.২ = ৩৮.৬৮ ‍‍‍~ ৩৮.৫ ইঞ্চ

Card image cap
কংক্রিট মিক্স ডিজাইন
engr.tushar - 27 Apr 2014

কংক্রিট এর মধ্যে মুল উপাদান থাকে সিমেন্ট, বালি ও পাথর। আর এদের সহায়ক হিসাবে থাকে পানি ও এডমিক্সার। ইঞ্জিনিয়ারিং এর ভাষাতে সিমেন্ট হলো বন্ডিং এজেন্ট। বালি হলো ফাইন এগ্রিগেট এবং পাথর হলো কোর্স এগ্রিগেট। পানি সিমেন্টের সাথে বিক্রিয়া করে সিমেন্ট+বালি+পাথরকে একটি উপাদানে বেধে ফেলে। পুরো উপাদান হয়ে পাথরের মত শক্ত। কিন্তু এগুলো কি ইচ্ছা মতো মেশানো যায় ?? না যায় না। সিমেন্ট,বালি,পাথর,পানি ও এডমিক্সার এর অনুপাতের উপরই নির্ভর করে কংক্রিট এর ক্ষমতা। 

আমরা সাধারণ ভাষাতে সিমেন্ট:বালি:পাথর এভাবে বলে থাকি। যেমন 1:2:3 অথবা 1:1.5:3 অথবা 1:2:4। কিন্তু এই অনুপাতই সবকিছু না। সিমেন্ট-পানির অনুপাত একটি গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। আবার পাথরের মধ্যে বিভিন্ন সাইজের পাথরের মিশ্রণও খুব গুরুত্বপুর্ণ। যেমন ধরুন সকল পাথর যদি 20 মিলি সাইজের হয়, তাহলে কিন্তু ভাল হবে না। এর চেয়ে ছোট সাইজের মিশ্রণ থাকতে হবে পাথরের মধ্যৈ। এই জন্যই কিন্তু পাথরের সাইজ এর সাথে একটি কথা যুক্ত থাকে। তা হলো " ডাউন গ্রেডেড"। অর্থাৎ এর চেয়ে ছোট সাইজের পাথর এবং সেটাও সঠিক ভাবে থাকে হবে। 

এই মিশ্রণের অনুপাত বের করার পদ্ধতিকেই মিক্স ডিজাইন বলে।

মিক্স ডিজাইনের জন্য বিভিন্ন গবেষক (বৃন্দ) বিভিন্ন পদ্ধতি দিয়েছেন। বর্তমানে এসি.আই মিক্স ডিজাইন বেশি ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও কিছু পদ্ধতি আছে। যদিও সেগুলি বেশ পুরাতন। যেমন:

1.খুব কম পরিমান ফাকা বা ভয়েডের অবস্থান। এতে খেয়াল রাখা হতো যেন মিক্সার এর মধ্যে শুন্যতা না থাকে। অর্থাৎ এতে ঘণত্ব বেশি থাকতো। এটি বেশ পুরানো পদ্ধতি

2. ফুলার পদ্ধতি: এটিও ঘণত্ব বাড়ানোর একটি পদ্ধতি। ফুলার ও থমসন এই পদ্ধতি আবিস্কার করেন। তারা সুত্র দেন- p=100 X root(d/D)

p=d এর চেয়ে ছোট উপাদানের শতকরা হার

d= ছোট উপাদানের সাইজ

D= বড় উপাদানের সাই। 

20 মিমি যদি বড় সাইজের হয়, 4.75 যদি ছোট সাইজের হয়, তাহলে 4.75 এর চেয়ে ছোট সাইজের উপাদান থাকতে হবে 50 শতাংশ।

3.তালবোট-রিচার্ড পদ্ধতি:এতে সিমেন্টের অনুপাত নির্ধারণ করে মিক্স করা হয়। তবে এই পদ্ধতি খুব বেশি জনপ্রিয় নয়

4. ফাইননেস মডুলাস পদ্ধতি: সুত্রটি নিম্নরুপ

p=100(A-B)/(A-C)

P=ফাইন এগ্রিগেটের অনুপাত মোট এগ্রিগেটের সাথে

A= কোর্স এগ্রিগেটের ফাইননেস মডুলাস

B= টেবিল অনুসারে , সিমেন্টের সাথে সম্পর্কিত সর্বোচ্চ অনুমোদিত ফাইননেস মডুলাস

C= ফাইন এগ্রিগেটের ফাইননেস মডুলাস

5. এ.সি.আই পদ্ধতি: এটিই সবচেয়ে বেশি ব্যবহুত হয়। এই বিষয়ে আমাদের পুর্বে একটি লেখা দেয়া হযেছিল।

Card image cap
মালিকের অবহেলাতে বাড়ির দুর্দশা
engr.tushar - 28 Sep 2014

একটা বিল্ডিং ডিজাইনে যে পরিমাণ ফ্যাক্টর অফ সেফটি ধরা হয়, তাতে তা কলাপ্স করার সম্ভাবনাই থাকে না।
কিন্তু তারপরেও এতো বিল্ডিং কেন ধসে পড়ছে???? আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে এর একটা এনালাইসিস।

এবার আসুন দেখি ফ্যাক্টর অফ সেফটি গুলো কিভাবে আসছে-----
১) সয়েল টেস্ট রিপোর্টের মাটির বিয়ারিং কেপাসিটিতে ২-৩ পর্যন্ত ফ্যাক্টর অফ সেফটি ধরা থাকে।
২) লোড কম্বিনেশনে ডেড লোড আর লাইভ লোডে যথাক্রমে ১.২ ও ১.৬ ফ্যাক্টর অফ সেফটি ধরা থাকে।
৩) ঝড় তুফান আর ভূমিকম্পের সাথে সর্বোচ্চ লাইভ লোড পাবার সম্ভাবনাও খুবই কম, তাই লোড কম্বিনেশনেও একটা সুবিধা পাওয়া যায়।
৪) মোমেন্ট হিসাবেও একটা ফ্যাক্টর অফ সেফটি ধরা থাকে।
৫) ভালো ডিজাইনাররা ডিজাইনে ঢালাইয়ের স্ট্রেন্থ ২৫০০ পিএসআই ধরলেও বাস্তবে ৩০০০ পিএসআই কনক্রিট স্ট্রেন্থের সাজেস্ট করেন।
৬) অনেক ডিজাইনার আবার কলাম/বিম ডিজাইনে যা রড আসে তার চেয়ে একটা বা দুটা রড বেশি দেন।
তাহলে বলেন, বিল্ডিং কেন ধসে??????

এখন আসেন দেখি, পাবলিকের পইতালি কিভাবে একটা বিল্ডিং ডিজাইনকে দুর্বল করে--------
১)মালিকের পইতালি—
যদি ডিজাইনে পাইল দেন, তাহলে হুদাই ঘ্যানর ঘ্যানর করবে এই বলে, “ ভাই পাইলটা কি কুনো ভাবেই বাদ দেয়া যায় না???” আপনে যদি “না” করেন তাহলে জমির মালিক অতি জ্ঞানী হইলে আপনারে এভয়েড করে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার দিয়া থাম্ব রুলে পাইল বাদ দিয়ে বিল্ডিং বানাবে।
আপনে বিল্ডিং এর বিম/কলামে যে রড যে কয়টা দিতে বলবেন, সে পাশের বাড়ির কলামের রডের সাথে তুলনা করে তার চেয়ে কম রড দিবে। আর সাথে তো তত্ত্বাবধায়ক উপদেষ্টা মি রাজমিস্ত্রি ওরফে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার তো আছেই।
মালিক আর রাজমিস্ত্রির এহেন মাদবুরি উপরের বর্ণিত ১,২,৩,৪ আর ৬ নং ফ্যাক্টর অফ সেফটিকে দুর্বল করে ফেলবে।
সাধারণত সিমেন্টের গুনাগুণ সর্বোচ্চ দুই মাস পর্যন্ত মোটামোটি ভালো থাকতে পারে, যদি আপনে তা ভালো করে সংরক্ষণ করতে পারেন। কিন্তু অধিকাংশ সময়ে ডেম সিমেন্ট দিয়েই অনেকে ঢালাই করে। এটা ৫ নং ফ্যাক্টর অফ সেফটিকে দুর্বল করে ফেলবে।

২) মি রাজমিস্ত্রি ওরফে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারের পইতালি
এদের টলটলা ঢালাই মসলা না হলে মন ভরে না, তাই ঢালাইয়ের বন্ধু কাম শত্রু অতিরিক্ত পানি দিয়ে মসলা মিশাবে যা ৫ নং ফ্যাক্টর অফ সেফটিকে দুর্বল করে ফেলবে।
ডিজাইনারের অবর্তমানে অতি আগ্রহে জমির মালিকের টাকা সেইভ করার জন্য বিভিন্ন সময় রডের ডিজাইন চেঞ্জ করবে এবং সিমেন্ট কম দিবে। কিন্তু ঢালাইয়ের মালটা ভালো করে মিশাবে না কিংবা কাস্টিং করার সময় ভালো করে কম্পেক্ট করবে না। এতে করে ফ্যাক্টর অফ সেফটিগুলো আবার দুর্বল হবে।

আবার আপনে ডিজাইন করাবেন কমার্শিয়াল বিল্ডিং কিন্তু সেখানে ভাড়া দিবেন ফ্যাক্টরি, কিংবা ডিজাইনারকে বলবেন ৬ তালা করবেন কিন্তু বাস্তবে করবেন ৯ তালা, সেক্ষেত্রে আপনার অতি মুনাফা লোভ সবগুলা ফ্যাক্টর অফ সেফটিগুলো খেয়ে ফেলবে।

সুতরাং বুঝতেই পারতাছেন আপনাদের উস্তাদি প্রতি ধাপে ধাপে কিভাবে ফ্যাক্টর অফ সেফটিগুলো
খেয়ে ফেলে।
যার কাজ তাকে করতে দিন এবং দক্ষ ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে বিল্ডিং বানান।

Card image cap
বর্জ্যপানি ব্যবস্থাপনা (ই.টি.পি)
engr.tushar - 17 Apr 2014

 

ইফলুয়েন্ট ট্রিটমেন্ট প্লান্ট (ই. টি. পি) , পানি শোধণের জন্য খুব গুরুত্বপুর্ণ। টেক্সটাইল, টেনারি, ক্যামিক্যাল, ফার্মাসি , ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের জন্য এটি বাধ্যতামুলক। পরিবেশবাদীরা এখন এই বিষয় নিয়ে বেশ সক্রিয়।

এই প্লান্ট ধাপে ধাপে কিভাবে কাজ করে তা নিচে দেখানো হলো।

 

বর্জ্য পানি বিভিন্ন জায়গা থেকে

প্রাথমিক ফিল্টার

ঠান্ডাকরণ এবং মিশ্রণ

এসিড বা ক্ষার দিয়ে নিষ্ক্রিয় করণ

ক্যামিকেল কো-অগুলেশন

তৈল/চর্বি স্থিতিকরণ ও আলাদাকরণ

প্রেসার ফিল্টার

মুক্ত করা বা বের করে দেওয়া

নিচে ধাপগুলির সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দেয়া হলো

প্রাথমিক ফিল্টার: এই ধাপে পানির সাথের কোন সলিড বা শক্ত আবর্জনা থাকলে তা বেছে ফেলে দেয়া হয়।

ঠান্ডাকরণ ও মিশ্রণ : ফ্যানের সাহায্যে বিভিন্ন ধরণের বর্জ্য পানি একসাথে মেশানো হয় ও বাতাস দিয়ে ঠান্ডা করা হয়

নিষ্ক্রিয়করণ : ঠান্ডা হওয়ার পর এই পানিকে নিউট্রালাইজেশন ট্যাংক এ পাম্প এর সাহায্যে পাঠানো হয়, এই ট্যাংকের মধ্যে এসিড বা ক্ষার দিয়ে নিষ্ক্রিয করা হয়। পি.এইচ মিটার দিয়ে এর মাণ নির্ণয় করা হয়।

কো-অগুলেন্ট: এই পদ্ধতিতে পানিকে কিছুটা জেল এর মত অবস্থায় নেয়া হয়।

সেটল ট্যাংক বা স্থিতিকরণ: বিভিন্ন ধরনের তেল,চর্বি, জিবাস্ম আলাদা করা হয় .

প্রেসার ফিল্টারr: চাপশক্তির সাহায্যে ফিল্টার করা হয়

কার্বণ ফিল্টার: এটি কখনও কখনও ব্যবহার করা হয়, কখনও হয় না

ড্রেইন আউট : পাণি বিশুদ্ধ বা নিরাপদ হওয়ার পর ড্রেনের মাধ্যমে বের করে দেয়া হয়

Card image cap
ঢালাই লোহা, পাকা লোহা ও স্টীল
engr.tushar - 24 Mar 2014

বিভিন্ন ধরণের লোহা ও স্টীলের তুলনামুলক বৈশিষ্ঠ্য

গুনাগুণ

কাষ্ট আইরণ

রট আইরণ

স্টীল

গঠণ

অশোধিত আইরণ বা লোহা, এতে 2.5%-4.5% লোহা থাকে

শোধন করা লোহা এইটা, এতে 0.2% কার্বণ থাকে

এটি কাষ্ট ও রট আইরণ এর মধ্যবর্তি অবস্থা, এতে 0.1-1.1% কার্বণ থাকে।

কাঠামো

ক্রিস্টালাইন

ফাইবার জাতীয়

গ্রাণুলার

আপেক্ষিক  ভর

7-7.5 হয়ে থাকে

7.8 এর মত

7.85 এর মত

মেল্টিং পয়েন্ট

1250 ডিগ্রি সে:

150 ডিগ্রি সে:

1300-1400 সে:

হার্ডনেস / মজবুত

বেশ শক্ত। তাপ দিয়ে এবং হঠাৎ ঠান্ডা করে আরও মজবুত করা যায়

এটা মজবুত করা যায় না

এটা মজবুত করা যায় এবং টেম্পার্ড করা যায়।

আল্টিমেট শক্তি (এম.পি.এ)

চাপ-600-700

টাণ-120-150

চাপ-200

টাণ-400

চাপ-180-350

টাণ- 310-700

হঠাৎ আঘাতে

এটা হঠাৎ আঘাত সহ্য করতে পারে না

মাঝারি পারে, কিন্তু বেশি হলে পারে না

এটার ইমপ্যাক্ট লোড বা হঠাৎ আঘাত সহ্য ক্ষমতা অনেক

চৌম্বকীয়

একে চৌম্বক বানানো যায় না

স্থায়ী চৌম্বক করা যায় না, কিন্তু অস্থায়ী করা যায়

স্থায়ী চৌম্বক বানানো যায়।