বিভিন্ন ধরণের রঙ
বিভিন্ন ধরণের রঙ
engr.tushar at তারিখ 08 Jan 2014 সময়: 02:11

বিভিন্ন ধরণের কাজের জন্য বিভিন্ন ধরণের রং ব্যবহার করা হয়। কাজের ধরণ, উপাদানের ধরণ, স্থানের উপর নির্ভর করে এই রং নির্বাচণ। আসুন জেনে নেই সেই সম্পর্কে অল্প কিছু।

আভ্যন্তরীন দেয়াল ও সিলিং

ডিসটেম্পার: ইট, কংক্রিট ও প্লাস্টারের উপর ডিস্টেম্পার করা হযে থাকে। বিভিন্ন ধরনের ডিস্টেম্পার পাওয়া যায়। এক্রেলিক, সিনথেটিক, ড্রাই , ইত্যাদি। এক্রেলিক ডিস্টেম্পার পানি দিয়ে ধোয়া যায়। কিন্তু সিনথেটিক ও ড্রাই ডিস্টেম্পার পানি দিয়ে ওয়াশ করা যায় না। সুতরাং পানি দিয়ে ধোয়া গেলেই যে প্লাস্টিক পেইনট হতে হবে, এমন ধারণা রাকা ঠিক না। 
প্লাস্টিক পেইন্ট : প্লাস্টিক ইমালশন নামেই বেশি পরিচিত। পানি বেইজ রং এটি। এই রং দীর্ঘস্থায়ি এবং ওয়াশেবল। এই প্লাস্টিক পেইন্ট তিন ধরণের।

  • রেগুলার ইমালশন
  • ইকোনোমিক ইমালশন
  • প্রিমিয়ার ইমালশন 

2. বাহিরের দিকে

বাইরের দিয়ে আবহওয়ার প্রভাব থাকে। তাই এই দিকে অন্য ধরণের রং ব্যবহার করা হয়।

সিমেন্ট পেইনট- এটি একটি পানি বেইজ রং। . 

এক্রেলিক ইমালশন- এটা খুবই ভাল। দীর্ঘস্থায়ি ও ওয়াশেবল। এর ব্যবহার বহূল।

টেক্চার প্লাস্টার- এটা ইমালশন বেইজ পেইন্ট। অর্থাৎ এতে পানির বদলে ইমালশন ব্যবহার করা হয়। অন্য ইমালশন পেইন্ট থেকে এই পেইন্ট অনেক ভাল। 

3. কাঠে

বার্ণিশই বেশি ব্যবহুত হয় কাঠে। তবে পলিইউরোথিন ও মেলামাইন রং এর ব্যবহার বর্তমানে বাড়ছে। তবে এই রং বার্ণিশের মত স্বচ্ছ না। 

4. মেটাল বা ধাতবে

লোহার উপর প্লাস্টিক পেইন্ট লাগে না, উঠে আসে। তাই এর জন্য এনামেল পেইন্ট ব্যবহার করা হয়। সিনথেটিক ও সাধারণ , এই দুই ধরণের এনামেল পেইন্ট ব্যবহার করা হয়।