engr.tushar এর ব্লগ

কনস্ট্রাকশনসাইটে কনক্রীট সিলিন্ডার প্রস্তুতকরণ, সংরক্ষণ ও পরীক্ষনের আদর্শ নিয়মাবলী

কনক্রীট সিলিন্ডার প্রস্তুতপ্রণালী 

১. সিলিন্ডার সাইজঃ

  • সাধারণত কনক্রীটের কমপ্রেসিভ স্ট্রেংথ পরীক্ষণের জন্য আমরা ৬" X ১২"সিলিন্ডার স্যাম্পল তৈরি করে থাকি।
  • তবে ৪"  X ৮"সিলিন্ডার স্যাম্পলও তৈরি করা যায়, যা ASTM Standard C31/C31M-03 দ্বারা স্বীকৃত।
  • লক্ষনীয় যে, ৪ " X ৮" কনক্রীট সিলিন্ডার তৈরির সাথে বেশ কিছু উপকারিতা সন্নিহিত। যেমন ঃ 

ƒএকটি ৬" X ১২" সিলিন্ডার তৈরিতে যে পরিমাণ কনক্রীট প্রয়োজন, তা দিয়ে তিনটিরও বেশী ৪ " X ৮" কনক্রীট সিলিন্ডার তৈরি করাসম্ভব। অর্থাৎ, ৭০% কনক্রীট অপচয় রোধকরা যায়।

কংক্রিট এর বিভিন্ন উপাদানের মিশ্রণ অনুপাত

প্রতি ঘণ গজ বা ২৭ ঘণফুট কংক্রিট তৈরি করতে যে পরিমান মালামাল লাগে
৩০০০ পি.এস.আই এর জন্য

  1. সিমেন্ট ৫১৭ পাউন্ড
  2. ১৫৬০ পাউন্ড
  3. ১৬০০ পাউন্ড পাথর
  4. ৩২-৩৪ গ্যালণ পানি

৪০০০ পি.এস.আই এর জন্য

  1. সিমেন্ট ৬১১ পাউন্ড
  2. ১৪৫০ পাউন্ড
  3. ১৬০০ পাউন্ড পাথর
  4. ৩৩-৩৫ গ্যালণ পানি

তবে কংক্রিট মিক্স ডিজাইন করা ভাল। এই জন্য এখানে ক্লিক করুণ ; http://need4engineer.com/n4u/mixdesign

গ্র্যাব রেইল

main-bath-grab-bars

গ্র্যাব রেইল বা গ্র্যব বার বেশ উপকারি ও দরকারি একটি বাথরুম এক্সেসরিজ

আমাদের দেশে এর ব্যবহার নেই বললেই চলে। কিন্তু বিদেশে বেশ ব্যবহার হয় এটি। মুলত বয়স্ক মানুষদের জন্য অথবা দুর্বল মানুষদের জন্য। বসা থেকে থেকে উঠে দাড়ানো বা দাড়ানো থেকে বসা অবস্থায় যাওয়ার জন্য এই গ্র্যাব রেইল ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

কোথায় ব্যবহার হয় ?

রডের এস্টিমেট ( কাছাকাছি )

প্রতি ঘণমিটারে সাধারণত কত কেজি রড বা লোহা লাগে তার একটি তালিকা দেওয়া হলো। আশা করি এটা আপনাদের এস্টিমেটের কাজে লাগবে। ডিজাইনের আগে মোটোমোটি (+-50%) এস্টিমেটের জন্য তালিকাটি খুব কাজের

ক্লোরিনেটেড পলিভিনাইল ক্লোরাইড (সি.পি.ভি.সি)

ক্লোরিনেটেড পলিভিনাইল ক্লোরাইড (সি.পি.ভি.সি)
ধরণ থার্মোপ্লাস্টিক
ঘনত্ব 1.56 g/cm3
মডুলাস অফ ইলাস্টিসিটি (E) 2.9-3.4 GPa

জেনে নিন মিনিমাম পুরুত্ব (ডিফ্লেকশন হিসাব না করা হলে)

ওয়ান ওয়ে স্ল্যাব

১. সিম্পলী সাপোর্ট =  স্প্যান / ২০

২. একদিকে কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ২৪

৩. দুই দিকেই কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ২৮

৩. ক্যান্টিলিভার =  স্প্যান / ১০

 

বীম

১. সিম্পলী সাপোর্ট =  স্প্যান / ১৬

২. একদিকে কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ১৮.৫

৩. দুই দিকেই কন্টিনিউয়াস =  স্প্যান / ২১

৩. ক্যান্টিলিভার =  স্প্যান / ৮

 

উল্লেখ্য :

কংক্রিট মিক্স ডিজাইন

কংক্রিট এর মধ্যে মুল উপাদান থাকে সিমেন্ট, বালি ও পাথর। আর এদের সহায়ক হিসাবে থাকে পানি ও এডমিক্সার। ইঞ্জিনিয়ারিং এর ভাষাতে সিমেন্ট হলো বন্ডিং এজেন্ট। বালি হলো ফাইন এগ্রিগেট এবং পাথর হলো কোর্স এগ্রিগেট। পানি সিমেন্টের সাথে বিক্রিয়া করে সিমেন্ট+বালি+পাথরকে একটি উপাদানে বেধে ফেলে। পুরো উপাদান হয়ে পাথরের মত শক্ত। কিন্তু এগুলো কি ইচ্ছা মতো মেশানো যায় ?? না যায় না। সিমেন্ট,বালি,পাথর,পানি ও এডমিক্সার এর অনুপাতের উপরই নির্ভর করে কংক্রিট এর ক্ষমতা। 

বর্জ্যপানি ব্যবস্থাপনা (ই.টি.পি)

 

ইফলুয়েন্ট ট্রিটমেন্ট প্লান্ট (ই. টি. পি) , পানি শোধণের জন্য খুব গুরুত্বপুর্ণ। টেক্সটাইল, টেনারি, ক্যামিক্যাল, ফার্মাসি , ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের জন্য এটি বাধ্যতামুলক। পরিবেশবাদীরা এখন এই বিষয় নিয়ে বেশ সক্রিয়।

এই প্লান্ট ধাপে ধাপে কিভাবে কাজ করে তা নিচে দেখানো হলো।

 

বর্জ্য পানি বিভিন্ন জায়গা থেকে

প্রাথমিক ফিল্টার

ঠান্ডাকরণ এবং মিশ্রণ

এসিড বা ক্ষার দিয়ে নিষ্ক্রিয় করণ

ক্যামিকেল কো-অগুলেশন

তৈল/চর্বি স্থিতিকরণ ও আলাদাকরণ

প্রেসার ফিল্টার

ঢালাই লোহা, পাকা লোহা ও স্টীল

বিভিন্ন ধরণের লোহা ও স্টীলের তুলনামুলক বৈশিষ্ঠ্য

গুনাগুণ

কাষ্ট আইরণ

রট আইরণ

স্টীল

গঠণ

অশোধিত আইরণ বা লোহা, এতে 2.5%-4.5% লোহা থাকে

শোধন করা লোহা এইটা, এতে 0.2% কার্বণ থাকে

পৃষ্ঠাসমূহ