World

Featured post

Nov 12

This is a wider card with supporting text below as a natural lead-in to additional content.

Continue reading
Card image cap
Design

Post title

Nov 11

This is a wider card with supporting text below as a natural lead-in to additional content.

Continue reading
Card image cap
Card image cap
ধাপে ধাপে অটোক্যাড
Ashraful Haque - 08 Jun 2011

১ আগষ্ট থেকে ছাপা হবে অটোক্যাড টিউটোরিয়াল বা ধাপে ধাপে অটোক্যাড। 

আপনাদের মন্তব্য, প্রশ্ন, আগ্রহ, পরামর্শ  ইত্যাদি নিচের মন্তব্য ঘরে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

Card image cap
AutoCAD tutorial-01
engr.tushar - 03 Aug 2011

অটোক্যাড এ ড্রয়িং করা খুবই সহজ। আজকে অটোক্যাড সফ্‌টওয়্যার এর বেসিক কিছু নিয়ে আলোচনা করব। পরবর্তিতে বাস্তবে কিভাবে ড্রয়িং করতে হয় সেটা নিয়ে আলোচনা করব। ১৫ থেকে ২০ টা পর্বেই অটোক্যাড শেখা শেষ হবে বলে আশা করছি।

নিচে অটোক্যাড সফ্‌টওয়ারটির চেহারা নিয়ে আলোচনা করা হল।

নিচে বিভিন্ন অংশ নিয়ে আলোচনা করা হল

১. রিবন মেনু

ট্যাব মেনু এবং প্যানেল এর সমন্বয়ে রিবন মেনু তৈরি। বিভিন্ন ট্যাবে বিভিন্ন প্যানেল আছে। প্যানেল হল টুলবার এর মতই। কিছু টুলস্‌ লুকানো থাকে এবং নিচের লাইনে (যেখানে প্যানেল তীরটি আছে) ক্লিক করলে বাকি গুলি দেখা যায়।

২. ট্যাব মেনু

মেনু এবং ট্যাব মেনুর মধ্যে কোন পার্থক্য নাই। দুইটাই এক, শুধু এখানে মেনুতে ক্লিক করলে বিভিন্ন প্যানেল আসে। এই জন্য একে ট্যাব বলা হয়।

৩. প্যানেল

প্যানেল হলো টুলবার এর নতুন ভার্সন

৪. ড্রয়িং বোর্ড

এখানেই ড্রয়িং করা হয়ে থাকে।

৫. কার্সর

কার্সরটি ড্রয়িং করতে অনেক সাহায্য করে। কখনও কখনও কার্সর ছাড়া ড্রয়িং করা প্রায় অসম্ভব।

৬. ভিউ কিউব টুল

ড্রয়িং বিভিন্ন ভাবে দেখার জন্য এই টুল খুব কাজে লাগে। একই সঙ্গে আমরা ড্রয়িং এর কোন অংশ দেখতে পাচ্ছি তাও জানা যায় এই টুল থেকে। যেমান প্ল্যান বা উপর তল, বাম পার্শ্ব , ডান পার্শ্ব, সম্মুখ, পেছন ইত্যাদি।

৭. লে-আউট বাটন

লে-আউট বা পেপার স্পেস এ কাজ করার জন্য এইটি। সাধারণত ড্রয়িং সাজানো এবং প্রিন্ট করার সময় এর ব্যবহার আছে।

৮. কমান্ড লাইন

এটি একটি গুরুত্বপুর্ন অংশ। আপনি কি কমান্ড দিলেন এবং এর প্রেক্ষিতে কি করতে হবে তার নির্দেশনা থাকে এখানে। কমপক্ষে ৩ লাইন বিশিষ্ট কমান্ড লাইন থাকা উচিৎ। এর কম হলে কমান্ড এর অনেক কিছু দেখা যায় না। আবার বেশি হলে তা ড্রয়িং বোর্ড এর জায়গা অযথা দখল করে থাকে।

৯. স্ট্যাটাস লাইন

এখানে বিভিন্ন বিষয়ের অবস্থা উল্লেখ থাকে। যেমন- ওর্থো , ওস্ল্যাপ, গ্রীড ইত্যাদি বিভিন্ন অপশন চালু আছে না বন্ধ আছে তা জানা যায়।

Card image cap
AutoCAD tutorial-02
engr.tushar - 07 Aug 2011

 আজকে আলোচনা করব স্থানাংক বা co-ordinate নিয়ে। এটা জানা থাকলে কাজ করতে অনেক সুবিধা হয়। এটা জানা ছাড়াও কাজ করা সম্ভব। কিন্তু আমি বলব এটা জেনে কাজ করাটা সুবিধাজনক এবং গুরুত্বপুর্ণ।

উপরের ছবিটি একটি আয়াতাকার। যার চারটি কোনা আছে। এই চারটি বিন্দুই আয়াতাকারের বৈশিষ্ঠ্য নির্ধারণ করে। যেমন এর আকার, আয়তন।

আবার মনে করুন আপনি একটি লাইন আকতে চাচ্ছেন তাহলে আপনার দুইটি বিন্দু দরকার। এবং প্রতিটি বিন্দুরই স্থানাংক থাকে। একটি কাগজে কোন কিছু আকতে গেলে দুই দিকের স্থানাংক লাগে। একটি হল এক্স (X) এবং অপরটি হলো ওয়াই (Y)। আবার ত্রিমাত্রিক বা বাস্তবে আরও একটি অতিরিক্ত দিক লাগে তাহলো জেড (Z)।

বর্তমানে দুইমাত্রিক বা 2D নিয়ে আলোচনা করব।

ধরুন আপনি উপরের আয়াতাকারটি আকতে চাচ্ছেন, এই ক্ষেত্র আপনি দুইভাবে আকতে পারেন

১) আপনি সরাসরি একটি আয়াতাকার আকবেন

২) চারটি লাইন অংকন করার মাধ্যমে

আমি ২ নম্বর উপায় নিয়ে আলোচনা করব। কেননা প্রথমটি অতি সহজ। দ্বিতীয় পদ্ধতি থেকে আপনি স্থানাংক সম্পর্কে ভাল ধারনা পাবেন।

প্রথমে লাইন ড্র করতে হলে আমাকে line কমান্ড দিতে হবে। লাইন কমান্ড এর সংক্ষিপ্ত হল, line এর প্রথম অক্ষর " l "। এল লিখে কি বোর্ড এর এনটার বাটন বা স্পেসবার এর চাপ দিতে হবে।

মনযোগ: কমান্ড দেওয়া বলতে বোঝায়, নির্দষ্ট কাজের জন্য এর সংক্ষিপ্ত শব্দ বা বর্ণ টাইপ করে এনটার বা স্পেসবার চাপ দেওয়া। যেমন লাইন এর জন্য l, বৃত্তের জন্য c, চতুর্ভুজের জন্য rec ইত্যাদি।

কমান্ড দেওয়ার পর কমান্ডলাইনের দিকে লক্ষ্য রাখুন

এখানে লেখা থাকবে

LINE Specify first point:

অর্থাৎ আপনাকে প্রথম পয়েন্ট নির্বাচন করতে হবে। কোন এক জায়াগায় ক্লিক করেও করতে পারেন। আবার কো-অর্ডিনেট বা স্থানাংক দিয়েও করতে পারেন। ধরে নেই আমরা ০,০ পয়েন্ট থেকে লাইন শুরু করতে চাই। তাহলে ০,০ লিখে স্পেসবার দেই ( স্পেসবার বা এন্টার উভয় বাটন কমান্ডের জন্য একই কাজ করে)।

এখন লেখা থাকবে

Specify next point or [Undo]:

অর্থাৎ পরের বিন্দুটি কোথায় হবে, যেই পয়েন্ট এবং প্রথম পয়েন্ট যোগ করলে একটি লাইন হবে। এই ক্ষেত্রে আমরা লিখতে পারি 0,3 অথবা 5,0।

যদি 0,3 লিখি তাহলে বামের লাইন তৈরি হবে। আর যদি 5,0 লিখি তাহলে নিচের লাইন তৈরি হবে।

ধরে নিলাম আমরা 0,3 লিখেছি। এবার এর পরের বিন্দুটি দিতে হবে। এইবার কোন বিন্দুর স্থানাংক দিলে ঐ বিন্দু এবং আগের বিন্দুটি যোগ হয়ে লাইন হবে। এই ক্ষেত্রে আমরা যদি 5,3 দেই তাহলে উপরের লাইন হবে। কেননা 0,3 এবং 5,3 বিন্দু দুইটি সরল রেখা দ্বারা যুক্ত হবে।

আমরা কিন্তু শুরু করেছিলাম 0,0 বিন্দু থেকে। কিন্তু আমরা যদি প্রথমে ০,০ না লিখে যেকোন স্থানে ক্লিক করে বিন্দু নির্বাচন করতাম তাহলে সেই বিন্দু থেকে লাইন শুরু হত।

সেই ক্ষেত্রে 0,3 না লিখে লিখতে হত @0,3 এবং পরেরবার 5,3 না লিখে লিখতে হত @5,0। অর্থাৎ @ দিলে আগের বিন্দু 0,0 হিসাবে চিন্ত করা হয়। এইটা অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। তবে ২০১২ ভার্সনে @ না দিলেও আগের বিন্দু ০,০ হিসাবেই ধরা হয়।

Card image cap
AutoCAD tutorial-03
engr.tushar - 08 Aug 2011

আগের দুই পর্ব ছিল অটোক্যাড সম্পর্কে ধারণা এবং কাজ সম্পর্ক ধারনা নেওয়ার জন্য। এখন তিনটি বিষয় নিয়ে কাজ করব।

এই তিনটি বিষয় ড্রয়িং করার সময় কাজে লাগবে। এগুলি হল

১) ESC বাটন

২) unit কমান্ড

৩) zoom কমান্ড

১) কোন কমান্ড থেকে বের হওয়ার জন্য ESC বাটন চাপদিতে হয়। এই বাটনটি থাকে কিবোর্ড এর একদম উপরে এবং বামে। কিছু কিছু কমান্ড আছে যা এই বাটন চাপ না দেওয়া পর্যন্ত চালু থাকে যেমন লাইন,অফসেট, জুম ইত্যাদি।

২) পরিমাপ পদ্ধতি নির্বাচন করার জন্য unit কমান্ড ব্যবহুত হয়। এই কমান্ড এর সংক্ষিপ্ত হর un । এই কমান্ড দিলে নিচের মত একটি ডায়ালগ বক্স আসবে।

এখানে architectural এবং decimal বেশি ব্যবহুত হয়। architectural এ ফিট-ইঞ্চ পদ্ধতিতে ড্রয়িং হয় এবং decimal এ দশমিক পদ্ধতিতে। ঠিক এর নিচে আছে precision। এর কাজ হল উপরেরর প্রধান একক গুলির ক্ষুদ্রতমতা কত হবে। যেমন দশমিক এর পর কত ঘর পর্যন্ত হবে। ডানে আছে clockwise এ টিক দিলে কোন কিছু ঘোরানো বা রোটেশন এর প্রয়োজন হলে তা ঘড়ির কাটার দিকে হিসাব করতে হবে। নাহলে ঘড়ির কাটার উল্টোদিকে হিসাব করতে হবে।

Sample output এর নিচের দুই নাম্বার লাইনে আছে ৩.০০০<৪৫.০.০০০০। এটি আসলে পোলার স্থানাংক পদ্ধতি। এটা খুব একটা কাজে লাগে না। তবে ভবিষ্যতে এই নিয়েও লেখা হবে।

৩) জুম এর মাধ্যমে কাছে-দুরে বা ছোট-বড় করে দেখা যায়। এই কাজটি অনেক সময় করা হয়। যেমন আগের পর্ব যেমন লাইন একেছি। তাতে করে অনেক সময় সেই লাই দৃষ্টিগোচর হতেও পারে আবার নাও পারে। যদি দেখা না যায়। সেই ক্ষেত্র জুম কমান্ড ব্যবহার করতে হবে। যেহেতে অটোক্যাড এর ড্রয়িং এর পাতা বিশাল-বিশাল-বিশাল। তাই অনেক সময় মনিটরের বাইরে ড্রয়িং থাকতে পারে। তখন এই কমান্ড এর মাধ্যমে মনিটরের ভেতরে আনা হয়। জুম এর অনেক ধরণ আছে

  1. All
  2. Center
  3. Dynamic
  4. Extents
  5. Previous
  6. Scale
  7. Window
  8. Object

এর মধ্যে extents এবং window বেশি ব্যবহুত হয়। extents দিলে সকল ড্রয়িং মনিটরের মধ্যে আসবে। আর window দিলে একটি আয়াতারের উপর এবং নিচের দুই কোনা নির্বাচন করতে হবে। এবং সেই অনুযায়ি ছোট বা বড় হবে। মাউসের স্ক্রলবাটন ঘুরিয়েও ড্রয়িং জুম করা যায়।

z কমান্ড দিয়ে তার পর ধরণ নির্বাচন করতে হয়। যেমন extents এর জন্য e এবং window এর জন্য w দিয়ে স্পেসবার দিতে হয়।

নোট: যেকোন কমান্ড দেওযার পর কমান্ড লাইনের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। অনেক কমান্ড এর সাথে []-এই ব্রাকেট এর মধ্যে বিভিন্ন অপশন থাকে। বড় হাতের বর্ণ গুলি টাইপ করে এই অপশন নির্বাচন করতে হয়। যেমন আমরা করেছি এই জুম কমান্ড এর সময়।

পুর্ববর্তি পার্টগুলি

Card image cap
AutoCAD tutorial-04
engr.tushar - 23 Aug 2011

আজ থেকে শুরু করবো একটি বাস্তব ড্রয়িং। এই ড্রয়িং করতে গিয়ে আমি ক্যাড এ যা যা করেছি তাই তুলে ধরব ধাপে ধাপে আশা করি এটি আপনাদের জন্য বেশি সহজবোধ্য হবে।

নিচে ড্রয়িংটির একটি ছবি যোগ করা হল

autocad sample drawing

প্রথমেই আমি এই ড্রয়িং করার জন্য প্রয়োজনীয় সেটিংস ঠিক করে নিয়েছি।

যেমন:

১। ইউনিট আর্কিটেকচারাল করেছি যা আমি autocad-tutorial-03 তে দেখিয়েছি

২। প্রয়োজনীয় লেয়ার নিয়েছি। এবং এর কালার বা রং, লাইন এর ধরন, লাইনের থিকনেস বা মোটা-চিকন নির্বাচন করেছি

৩। টেক্স স্টাইল ঠিক করেছি।

৪। ডাইমেনশন স্টাইল ঠিক করেছি।

উপরের কাজগুলি শেষ করার পর ড্রয়িং করা শুরু করেছি। এবং দুই নাম্বার ধাপ থেকে বিস্তারিত আমি আপনাদের সামনে নিয়ে আসবো খুব শিঘ্রই। আপনাদের দোয়া এবং উৎসাহ কামনা করছি

Card image cap
AutoCAD tutorial-05
engr.tushar - 31 Aug 2011

 

Auto CAD Layer box.....................

autocad Layer

উপরের ছবিটি একটি লেয়ার ডায়ালগ বক্স। লেয়ার নিয়ে কাজ করতে হলে এই বক্স সম্পর্কে ভালভাবে জানতে হবে। ড্রয়িংকে সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করার জন্য এটি খুবই গুরুত্বপুর্ন।

বক্সটির উপরের লাইন খেয়াল করলে দেখতে বিভিন্ন হেডিং আছে বিভিন্ন কলামের। নিচে এদের মধ্যে গুরুত্বপুর্ণগুলির বর্ণনা দেওয়া হল

status:এর মাধ্যমে জানা যায় যে কোন লেয়ারটি কারেন্ট লেয়ার হিসাবে আছে। একটি একটি লেয়ারের পাশে টিক চিহ্ন দেখতে পাচ্ছেন। অর্থাৎ এই লেয়ারটিই কারেন্ট লেয়ার। ক্যাডে এখন যা ড্রয়িং করা হবে তা এই লেয়ারে হবে।

name: বিভিন্ন লেয়ারের বিভিন্ন নাম। একই নাম দুইবার হয়না। প্রয়োজন অনুযায়ি এবং আপনার পছন্দ অনুযায়ি নাম দিতে পারেন।

On: এর দারা কোন লেয়ার অন/অফ করা যায়। অফ থাকলে এই লেয়ার এর কোন কিছু দেখা যাবে না। অফ মানে লুকায়িত অবস্থা। আবার অন করলে পুনরায় তা দেখা যাবে।

Freeze: এটি অনেকটা On এর মত। তবে বেশি শক্তিশালি। অনেকেই এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানে না। আমি এখানে এই সম্পর্কে একটু লিখব। অনেক সময় আমরা একই ব্লক এর মধ্যে বিভিন্ন লেয়ারের ড্রয়িং দিয়ে থাকি। একটি ব্লক এ যদি ৩ ধরণের লেয়ার এর বস্তু থাকে। এবং ব্লকটি যদি চতুর্থ কোন লেয়ার এ থাকে। এখন চতুর্থ লেয়ার অফ করলেও ব্লকটি দেখা যাবে। কেননা এর অন্যান্য লেয়ার অন আছে। কিন্তু চতুর্থ লেয়ার যদি ফ্রিজ করা যায় তাহলে ব্লকটি পুরোপুরি অদৃশ্র হয়ে যাবে।

Lock: এর মাধ্যমে কোন লেয়ারকে লক করা যায়। লক থাকা অবস্থায় ঐ লেয়ার এর কোন উপাদান আপনি মুছতে,পরিবর্তন, বা সরাতে পারবেন না। তবে নতুন কিছু ড্রয়িং করতে পারবেন।

Color: লেয়ার টির মধ্যের উপাদানগুলির রং কি হবে। মনে রাখতে হবে যদি উপাদানগুলির রং By Layerথাকে তবেই এটি কাজ করবে। কিন্তু যদি উপাদান এর রং আলাদা ভাবে দেওয়া থাকে তাহলে কাজ করবে না।

Linetype: লেয়ার টির মধ্যের উপাদানগুলির লাইন এর ধরণ কেমন হবে তা ঠিক করতে হয় এর মাধ্যমে। মনে রাখতে হবে যদি উপাদানগুলির লাইন এর ধরণ By Layerথাকে তবেই এটি কাজ করবে। কিন্তু যদি উপাদান এর লাইন এর ধরণ আলাদা ভাবে দেওয়া থাকে তাহলে কাজ করবে না।

Lineweight:লেয়ার টির মধ্যের উপাদানগুলির লাইন কত মোটা হবে তা ঠিক করতে হয় এর মাধ্যমে। মনে রাখতে হবে যদি উপাদানগুলির By Layerথাকে তবেই এটি কাজ করবে। কিন্তু যদি উপাদান এর লাইন এর ধরণ আলাদা ভাবে দেওয়া থাকে তাহলে কাজ করবে না।

Plot: প্রিন্ট করার সময় লেয়ার এর উপাদানগুলি প্রিন্ট হবে কি হবে না তা নির্ধারণ করা যায় এর মাধ্যমে

 

উল্লেখ্য: যেই লেয়ার এর যেই অবস্থা পরিবর্তন করতে হবে সেখানে ক্লিক করলে প্রয়োজনিয় কার হবে। যেমন: কোন লেয়ার কারেন্ট করতে হলে বক্স গুলির উপর ক্লিক বা ডাব্‌ল ক্লিক করতে হবে। রং পরিবর্তন করতে হলে সেই লেয়ার এর color এর উপর ক্লিক করতে হবে।

Card image cap
AutoCAD Tutorial-06
engr.tushar - 23 Apr 2013

বিভিন্নজন বিভিন্নজন বিভিন্নভাবে ড্রয়িং করে। আমি একদম বামের নিচের ওয়াল থেকে শুরু করবো

  1. প্রথমে l (এল) টাইপ করে এন্টার দিবো
  2. এতে করে লাইন কমান্ড এক্টিভ হবে।
  3. এবার যেই পয়েন্ট থেকে লাইন শুরু হবে সেই পয়েন্ট দেখিয়ে দিতে হবে
    1. লিখে দেখানো যায়
    2. মাউস পয়েন্টার দিয়ে ক্লিক করেও দেখানো যায়
  4. এখন যেকোন একটি জায়গাতে ক্লিক করি
  5. মাউস উপরের দিকে নিয়ে যায়। লাইন যদি 100% সোজা উপরের দিকে না হয় তাহলে বুঝতে হবে ORTHO চালু করা নাই। সেই ক্ষেত্রে চালু বা অন করে নিতে হবে। কিবোর্ড এর F8 (ফাংশন ৮) চাপ দিতে হবে। একবার চাপ দিলে অন, আর একাবার চাপ দিলে অফ হয়।
  6. এখন কিবোর্ড থেকে 7'-11" লিখে স্পেস বার এ চাপ দিতে হবে। এন্টার বাটন এ চাপ দিলেও হবে। এতে করে লাইনের দ্বিতীয় পয়েন্ট নির্বাচিত হলো। তাহলে একদম বামের লাইনের মত লাইন হবে।
  7. লাইন কমান্ড কিন্তু এখনও এক্টিভ আছে। মাউস নড়াচড়া করালে এখন নতুন লাইন এর জন্য এই দ্বীতিয় পয়েন্ট হবে প্রথম পয়েন্ট এবং দ্বিতীয় পয়েন্ট মাউস বা লিখে নির্বাচন করা যাবে।
  8. এখন লাইন কমান্ড থেকে বের হয়ে আসতে হবে। এর জন্য কিবোর্ড এর একদম ওপরের বাপমে ESC বাটন বা এসক্যাপ বাটনে চাপ দিতে হবে। যেকোন কমান্ড থেকে বের হওয়ার জন্য বা কমান্ড বাতিল করার জন্য এই বাটন ব্যবহার হয়।
  9. অনেক সময় পুরে লাইন অনেক ছোট বা বড় হতে পারে। তাই zoom কমান্ড দিয়ে প্রয়োজনীয় জুম করা যায়। এই জন্য কিবোর্ড এর z লিখে স্পেসবার এ চাপ দিতে হবে। মনে রাখতে হবে কোনকিছু লিখে স্পেসবার দিলেই কমান্ডটি এক্টিভ হয়ে যায়।
  10. এখন এই লাইন কমান্ড থেকে বের হযে আসতে হবে। তা না হলে লাইনের
  11. জুম এক্টিভ হলে এর বিভিন্ন অপশন দিতে হবে। এখানে আমরা e লিখে স্পেসবার দিবো। কেননা e মানে extents, অর্থাৎ আপনার যা কিছু ড্রয়িং আছে তা স্ক্রীন এ ফিট হয়ে যাবে, মানে সবগুলিকে মনিটরে দেখাবে।
  12. এরপর মাউসের স্ক্রল ঘোরালে জুম বড় বা ছোট হবে
  13. এখন আমরা যেই কাজটি করবো সেটা হলো 10" দেয়াল তৈরি। এখানে আমরা দেয়ালের বামের লাইনটি দিয়েছি। এখন ডানেরটি দিবো
  14. এই জন্য অফসেট কমান্ড ব্যবহার করতে হবে। কিবোর্ড এর o লিখে স্পেসবার দিয়ে এই কমান্ড এক্টিভ করতে হবে। অফসেট কমান্ড দিয়ে কোন লাইন (সোজা বা বাকা) এর সমান্তরাল লাইন করা যায়।
  15. এই কমান্ডের অপশনগুলি হলো
    1. দুরত্ব
    2. কোনটা অফসেট হবে
    3. কোনদিকে হবে
  16. যেহেতু আমাদের অফসেট কমান্ড এক্টিভ আছে এখন 10" লিখে স্পেস দিতে হবে।
  17. এর পর লাইনের উপর ক্লিক করতে হবে
  18. আমরা যেহেতু পুর্বে বামের লাইন ড্রয়িং করেছি সুতরাং এখন ডানের দিকে ক্লিক করতে হবে। ডানে যেকোন দিকে করলেই হবে (অনেক দুরে, কাছে, উপরে, নিচে)। অর্থাৎ লাইনের ডানে।
  19. এখন দুটি লাইন হয়ে গিয়েছে। আমাদের 10" দেয়াল এর নিচের দিকে এখনও বন্ধ করা হযনি।
  20. আবার esc বাটনের সাহায্যে এই কমান্ড থেকে বের হযে আসতে হবে।
  21. মনে রাখতে হবে মাউসের স্ক্রল ঘোরালে জুম হয়। আর স্ক্রল চাপদিয়ে ধরে রেখে মাউস নড়ালে ড্রয়িং সহ স্ক্রীণ নড়াচড়া করে।
  22. এল লিখে আবার লাইন কমান্ড এক্টিভ করতে হবে। আবারও বলছি এল লেখার পর স্পেসবার দিতে হবে। স্পেসবার না দেওয়া পর্যন্ত এক্টিভ হবে না। কেননা কোনও কোনও কমান্ড দিতে আবার একাধিক অক্ষর দিতে হয়। যেমন ইলিপস বা উপবৃত্ত দিতে el দিতে হয়। সাধারণত কোন কমান্ডের প্রথম অক্ষর বা প্রথম দুই অক্ষর দিয়ে কমান্ড দেয়া হয়। যেমন শুধু e দিলে ইরেজ বা মোছার কমান্ড এক্টিভ হবে।

Card image cap
AutoCAD Tutorial-07
engr.tushar - 28 Apr 2013

 গত পর্বে দেখিয়েছিলাম কিভাবে দুইটি সমান্তরাল লাইন করে দেয়াল তৈরি করা হয়। আজকে শিখবো কি করে দুইটি লাইন এর মাথা যোগ করতে হয়।

  1. অর্থো অন করে এই কাজ করতে হয়। F3 বাটন চাপ দিয়ে একবার অন ও আর একবার অফ করা যায়।
  2. এর সুবিধা হলো বিভিন্ন ধরণের পয়েন্ট এর কার্সর সরাসরি চলে যায়। যেমন শেষ বিন্দু, মধ্যবিন্দু, লম্ব বিন্দু ইত্যাদি।
  3. Shift+right mouse দিলে একটি মেনু আসবে নিচের মতো

  1. এখন থেকে যেই বিন্দু দরকার সেটি নির্বাচন করতে হবে (যদি বিশেষ কোন বিন্দু দরকার হয় )।
  2. একদম নিচে থেকে সেটিংস ঠিক করা যায়। অর্থাৎ কম্পিউটার নিজে থেকেই কোন কোন বিন্দু নির্বাচন করবে।
  3. Osnap Settings এ ক্লিক করলে নিচের মত করে আর একটি ডায়ালগ বক্স আসবে

  1. এখানে যেইগুলি টিক চিহ্ন থাকবে সেই পয়েন্ট শুধু কম্পিউটার নিজে থেকেই নির্বাচন করবে
  2. টিক চিহ্নের পাশে বিভিন্ন সিম্বল বা চিহ্ন দেখা যাচ্ছে। নিচে দুটি উদাহরণ দেয়া হলো
  3. এখানে বামে দেখা যাচ্ছে ত্রিভুজ আকৃতির চিহ্ণ এবং ডানেরটিতে চতুর্ভুজ। এরকম সিম্বল থাকা অবস্থায় মাউস ক্লিক করলে লাইনের মাঝের বিন্দু বা শেষের বিন্দুতে ক্লিক হবে। তবে মনে রাখতে হবে যে লাইন কমান্ড এক্টিভেট হলেই শুধু এটি হবে। তাছাড়া মাউস লাইনের কাছে নিলে হবে না। কিন্তু লাইন কমান্ট এক্টিভেট হলে মাউন বিন্দুর কাছাকাছি নিলে সেটা সয়ংক্রিয়ভাবে প্রয়োজনীয় বিন্দুতে চলে যাবে।
  4. এখন আমরা এই অর্থো অন থাকা অবস্থায় লাইন কমান্ড এক্টিভেট করি ( l লিখে ) এবং মাউস বামের লাইনের নিচে নিয়ে যায়।
  5. এখন কার্সর স্কয়ার এর মতো হলে বুঝতে হবে যে লাইনের শেষ বিন্দুতে মাউস আছে
  6. এখন ক্লিক করতে হবে। এতে করে লাইনের শুরু বিন্দু নির্বাচিত হলে
  7. এখন লাইনের শেষ বিন্দু নির্বাচিত করতে হবে।
  8. ডান পাশের লাইনের নিচের দিকে একই ভাবে ক্লিক করতে হবে।

15. আগেরদিন আমরা বামের মত করেছিলাম। এখন ডানের মত নিচের অংশে লাইন দিলাম।

 

Card image cap
AutoCAD Tutorial-08
engr.tushar - 02 May 2013

 

আগেরদিন আমরা ওয়াল তৈরি পর্যন্ত শিখেছিলাম। এখন এই ওয়ালটিকে আমরা ঠিক লেয়ারে দিয়ে দেব। এবং একই সংগে এর কিছু গুনাগুনও পরিক্ষা করবো ও প্রয়োজনে পরিবর্তন করবো

1.      প্রথমে লাইন দুইটি সিলেক্ট করি। এই সিলেক্ট দুই ভাবে করা যায়

a.       ডান থেকে বামে : এই ক্ষেত্র ওয়ালের ডানদিকের যেকোন জায়গায় ক্লিক করতে হবে। তারপর মাউস ওয়ালের বামদিকে নিয়ে আসতে হবে এবং কোন একটি ফাকা জায়গাতে ক্লিক করতে হবে। এইভাবে সিলেক্ট করলে সিলেকশন যে বক্স থাকে তার ভেতরে থাকা কোন বস্তুর পুর্ণাঙ্গ বা আংশিক থাকলে বস্তুটি সিলেক্ট হয়।

b.      বাম থেকে ডানে : এই ক্ষেত্র ওয়ালের বাম দিকে যেকোন জায়গায় ক্লিক করতে হবে। তারপর মাউস ওয়ালের ডানদিকে নিয়ে আসতে হবে এবং কোন একটি ফাকা জায়গাতে ক্লিক করতে হবে। । এইভাবে সিলেক্ট করলে সিলেকশন যে বক্স থাকে তার ভেতরে থাকা কোন বস্তুর শুধু পুর্ণাঙ্গ থাকলে বস্তুটি সিলেক্ট হয়।

2.      আপনার প্রয়োজনীয় বা সুবিধাজনক যেকোন একটি পদ্ধতিতে তা সিলেক্ট করতে পারেন।

3.      এখন mo লিখে এন্টার / স্পেসবার দিন। এতে করে properties উইন্ডো চালু হবে। এর মধ্যে এই লাইনের বিভিন্ন প্রপার্টিজ বা ধর্ম দেখা ও পরিবর্তন করা যাবে

ছবিটি হবে নিচের মত

4.      এখান থেকে আপনি লাইনের রং, লেয়ার, টাইপ/ধরণ, মোটা-চিকন, স্থানাংক এইগুলি দেখতে ও পরিবর্তন করতে পারবেন। যেই ঘরগুলি সাদা সেইগুলি পরিবর্তন করা যাবে। কিন্তু যেইগুলি ধুসর সেইগুলি পরিবর্তন করা যাবে না

5.      এখান থেকে লেয়ার পরিবর্তন করে ওয়াল করে দিতে হবে, কেননা এটা ওয়াল।

6.      টুলবার থেকেও এই লেয়ার পরিবর্তন করা যায়। লাইন বা কোন অবজেক্ট সিলেক্ট করলে তার সাথে সম্পর্কিত টুলবার সচল হয়। একে রিবন বলে। এই রিবন 2007 ভার্সন থেকে চালু হয়।

রিবনটি দেখতে নিচের মত

7.      এবার আমরা কলাম তৈরি করবো

8.      রিবন টুলবাল থেকে লেয়ার কলাম কে সিলেক্ট করি, এখানে Dimension লেয়ার একটিভ আছে।  এই Dimension লেখার উপর ক্লিক করলে বিভিন্ন লেয়ারে নাম আসবে। যা নিচের ছবির মত দেখাবে

9.      এখান থেকে Wall লেয়ারে ক্লিক করতে হবে। এখন আমরা যা কিছু ড্রয়িং করবো তা এই লেয়ারে চলে যাবে।

10.  কলাম আমরা লাইন দিয়েও করতে পারি, তবে একানে আমরা rectangle দিয়ে করবো।

11.  এর জন্য rec লিখে স্পেসবার দিয়ে এই কমান্ড একটিভ করি

12.  Osnap অন থাকা অবস্থায় বামের লাইনের উপরে শেষ মাথাতে ক্লিক করি

13.  কলামের সাইজ যেহেতু ১২" X ১৫" , তাই "@12,15" লিখে স্পেসবার দিতে হবে। এখানে @ দিলে লাইনের শেষমাথাকে 0,0 ধরে ক্যাড কাজ শুরু করবে। 12 হলো ভুমি এবং 15 হলো লম্ব।। @ চিহ্ন না দিলে আসল 12,15 স্থানাংকে পর্যন্ত চতুর্ভুজ অংকিত হবে।  rectangle কমান্ড মুলত একটি চতুর্ভুজের দুইটি কর্ণার এর স্থানাংক থেকে চতুর্ভুজ তৈরি করে।

14.  এই পর্যন্ত আমাদের একটি দেয়াল ও একটি কলাম অংকিত করা হয়েছে।

Card image cap
AutoCAD Tutorial-09
engr.tushar - 11 May 2013

গত পর্ব পর্যন্ত আমরা বাম পাশের ওয়াল এবং কলাম করেছিলাম। আজকে ডান পাশের 5” ওয়াল এবং কলাম করবো।

  1. প্রথমে o দিয়ে offset কমান্ড একটিভ করতে হবে। অর্থাৎ o লিখে স্পেসবার দিতে হবে
  2. এখন অটোক্যাড দুরত্ব চাইবে। দুরত্ব হলো দুইটি প্যারালাল লাইনের মধ্যবর্তি দুরুত্ব
  3. এখানে আমরা 10’ লিখে স্পেসবার দিবো। কেননা এখানে দুই ওয়ালের মধ্যবর্তি ফাকা দুরত্ব হলো 2-6”+7-6”=10’-0”।
  4. দুরত্ব দেয়ার পর আমাদেরকে সিলেক্ট করতে হবে যে কোন লাইনটা থেকে offset বা সমান্তরাল হবে। এখানে আমরা বাম পাশের ওয়ালের ডানের ওয়াল এর উপর মাউস দিয়ে ক্লিক করবো
  5. ওয়ালের উপর ক্লিক করা হলে অটোক্যাড জানতে চাইবে যে কোন দিকে হবে। মনে রাখতে হবে প্রতিটা লাইনের (বাঁকা বা সোজা ) দুই পাশ থাকে। এখানে আমরা ডান পাশে মাউস দিয়ে ক্লিক করবো। অর্থাৎ লাইনের ডান পাশে যেকোন যায়গায় ক্লিক করলেই হবে।
  6. এবার Esc বাটন চাপ দিয়ে কমান্ড থেকে বের হতে হবে
  7. আবার স্পেসবার দিয়ে পুণরায় offset কমান্ড চালু করতে হবে। এবার Distance হিসাবে 5” দিতেহবে।
  8. নতুন যেই লাইন তৈরি হলো offset এর মাধ্যমে। তার উপর ক্লিক করতে হবে। এবার side নির্বাচনের ক্ষেত্রে ডানে ক্লিক করতে হবে।
  9. বি:দ্র: কোন সময় যদি ড্রয়িং সম্পুর্ণ দেখা না যায়, সেই ক্ষেত্রে জুম কমান্ড ব্যবহার করতে হবে। এখানে z স্পেস e স্পেস দিলে সকল ড্রয়িং দেখা যাবে। তবে কোন কমান্ড এক্টিভ থাকলে কাজ করবে না। তাই Esc দিয়ে কোন কমান্ড থেকে বের হয়ে এসে জুম কমান্ড দিতে হবে।
  10. এবার আমরা কলাম তৈরি করবো। দুই ভাবে এই কলাম তৈরি করা যেতে পারে
    1. এই ক্ষেত্র চতুর্ভুজ দিয়ে করা যায়। rec স্পেস দিয়ে এক্টিভ করতে হবে। এবার ডানের লাইনের উপরে শেষ মাথাতে ক্লিক করতে হবে। তারপর @12,15 লিখে স্পেস দিতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে কলাম লেয়ার এক্টিভ করে নিতে হবে। অথবে ড্রয়িং করার পর কলামটি সিলেক্ট করে উপরে রিবণমেনু থেকে লেয়ার হিসাবে কলাম দিলেও হবে
    2. দ্বীতিয় পদ্ধতি হলো কপি করার মাধ্যমে। এই ক্ষেত্রে co লিখে স্পেস দিতে হবে। c দিলে হবে না, কেননা c তে সার্কেল বা বৃত্ত কমান্ড এক্টিভ হবে। এখন কপি কমান্ড এক্টিভ হলে , কি কি কপি হবে সেইগুলোতে মাউস দিয়ে ক্লিক করতে হবে। এখানে আমরা বামের কলামের উপর ক্লিক করবো। একসাথে অনেকগুলি বস্তু সিলেক্ট করা যায়। যতগুলি উপাদানের উপর ক্লিক করবো, ততগুলিই সিলেক্ট হবে। এখন স্পেসবার দিলে সিলেক্ট করার কাজ শেষ হয়ে গেলো। এখন আমাদের কোন বিন্দুর সাপেক্ষে কপি করতে হবে সেটা নির্বাচন করতে হবে। এখানে আমরা যেকোন যায়গাতেই ক্লিক করতে পারি। কোন একজায়গায় ক্লিক করে মাউস ডানের দিকে নিয়ে যাই। মনে রাখতে হবে ortho অন থাকতে হবে। অর্থাৎ মাউস সরাপর দেখা যাবে যে কলাম সোজা ডানে যাচ্ছে। যদি না যায় তাহলে বুঝতে হবে ortho অন নেই। তখন f8 বাটন চেপে অন করতে হবে। একবার চাপ দিলে অন এবং একবার চাচ দিলে অফ হয়। মাউস ডানে নেয়ার পর 10’-3” লিখে স্পেস দিতে হবে। এখানে 10’-3” দেয়ার কারণ হলে। দুই কলামের একই বিন্দুর মধ্যবর্তি দুরত্ব 10’-3”। যেমন 10”+2-6”+7-6”+5”-12”=10’-3”।
  11. এখন ডানের 5” ওয়ালের নিচের ছোট লাইন দিতে হবে। এখানে লাইন কমান্ড দিয়ে লাইন দুইটার নিচের শেষ বিন্দুতে ক্লিক করতে হবে। প্রথমে বামেরটার ও তারপরে ডানেরটার। আবার ডানেরটাতে আগে ক্লিক করে বামেরটাতে পরে করলেও হবে।
  12. এখন আমরা বারান্দার রেইলিং করবো।
  13. লাইন কমান্ড দিয়ে ডানের ওয়ালের বামের লাইনের নিচের বিন্দতে প্রথমে ক্লিক করতে হবে। এরপর বামের ওয়ালের ডানের লাইনের নিচের বিন্দুতে ক্লিক করতে হবে। তারপর কমান্ড থেকে বের হয়ে আসতে হবে (Esc দিয়ে)।
  14. এখন offset কমান্ড দিয়ে (o দিয়ে স্পেস) 2” অফসেট বা সমান্তরাল করতে হবে।
  15. এখন বাকা রেইলিং করার কাজ করবো।
  16. এই জন্য সার্কেল কমান্ড এক্টিভ করতে হবে।
  17. কমান্ড এক্টিভ হলে উপরের লাইনের মধ্য বিন্দুতে ক্লিক করতে হবে। এর জন্য osnap এর মিডল পয়েন্ট এক্টিভ বা টিক চিহ্ন থাকতে হবে। সাত তম পর্বে এই osnap নিয়ে লিখেছিলাম। ওখান থেকে পুণরায় দেখে নিতে পারেন।
  18. এখন আমাদের সার্কেল বা বৃত্তের রেডিয়াস দিতে হবে। এখানে 4’-8” এর অর্ধেক 2’-4” লিখে স্পেস দিতে হবে।
  19. যেহেতু এটা একটা পুরো বৃত্ত। কিন্তু আমাদের দরকার অর্ধবৃত্ত। তাই এখন নতুন একটি কমান্ড এর সাহায্যে এই কাজ করতে হবে
  20. এই কমান্ডের নাম ট্রীম। এই জন্য tr দিয়ে স্পেস দিতে হবে। শুধু t তে টেক্সট বা লেখার কমান্ড। তাই দুটি অক্ষর tr এ ট্রীম কমান্ড।
  21. ট্রীম কমান্ড এরও বিভিন্ন অপশন বা অনুধাপ আছে।
  22. এই কমান্ড একটিভ হলে প্রথমেই জানতে চাইবে যে কোন লাইনের সাপেক্ষে ট্রীম হবে বা কাটবে। অর্থাৎ কোনটা কাটবে সেটা নয়, কোনটা পর্যন্ত কাটবে সেইটা।
  23. এখানে আমরা রেইলিং এর উপরের লাইনে কাটবো। কেননা এই লাইনের উপরের অর্শের বৃত্তের অংশটি আমাদের কেটে ফেলতে হবে। এই কাটার সীমানা নির্বাচনের জন্য এক বা একাধিক সিমানা লাইন/বৃত্ত/চতুর্ভুজ ইত্যাদি নির্বাচন করা যায়। তাই উপরের লাইনে ক্লিক করার পর স্পেস দিতে হবে। কেননা এখান সীমানা একটাই।
  24. সীমানা নির্ধারণ হওয়ার পর কোনটা কাটতে হবে তা দেখিয়ে দিতে হবে। এখানে উপরের বৃত্তে ক্লিক করতে হবে। একাধিক বস্তুর অংশ কাটতে হলে একাধিক বস্তু সিলেক্ট / নির্বাচণ করতে হবে।
  25. এখন Esc দিয়ে বরে হয়ে আসতে হবে।
  26. এখন এই বৃত্তের ভেতরের দিকে 2” অফসেট করতে হবে। অফসেট নিশ্চয় এখন একা একাই পারবেন। তারপরেও বলছি, এই পর্বের একদম শুরুতেই অফসেট কিভাবে করতে হয় তা বলা হয়েছে।
  27. এখানে বৃত্তটি কেটেছে। কিন্তু বৃত্তের মধ্যে কিন্তু রেইলিং এর উপরের লাইনের অংশ থেকে গেছে।
  28. সুতরাং এখন আবার ট্রীম কমান্ড একটিভ করতে হবে। এখন সীমানা হিসাবে ভেতরের অর্ধবৃত্তটির উপর ক্লিক করতে হবে।
  29. স্পেস দিয়ে এখন কোনটা কাটবো তা দেখিয়ে দিতে হবে।
  30. যেহেহু সীমানা হিসাবে অর্ধবৃত্ত ব্যবহার করা হয়েছে, এখানে লাইনের কাটার জন্য তিনটি বিষয় আছে।
    1. অর্ধবৃত্তের বামের অংশ
    2. অর্ধবৃত্তের মাঝের অংশ বা মধ্যবর্তি অংশ
    3. অর্ধবৃত্তের ডানের অংশ
  31. এখানে আমরা অর্ধবৃত্তের মধ্যবর্তি অংশের দুইটি লাইনের মধ্যে উপরের লাইনের  উপর ক্লিক করবো। উল্লেখ্য উপরের লাইনের অংশে, নিচের লাইনের অংশে নয়।
  32. ট্রীম কমান্ডের সাহায্যে এখন পুরোনো অর্ধবৃত্তের মাঝের থেকে রেইলিং এর নিচের লাইনের অংশ কেটে ফেলতে হবে বা ট্রীম করতে হবে।
  33. এখানে দেখা যাচ্ছে পুরোনো বৃত্তের কিছু অংশ রেইলিং এর দুই লাইনের মধ্যে থেকে গিয়েছে।এটাকেউ ট্রীম করতে হবে।
  34. এই ট্রীম দুইভাবে করা যায়
    1. এই ক্ষেত্র ট্রীম কমান্ড একটিভ করে সীমানা হিসাবে বৃত্তের ডানের ও বামের লাইন যা রেইলিং এর নিচের লাইন তা নির্বাচন করতে হবে। তারপর বৃত্তটির বামের ও ডানের শেষ অংশগুলি যা রেইলিং এর নিচের লাইনের উপরের দিকে আছে, ঐ দুইটার উপর ক্লিক করতে হেব পর্যায়ক্রমে।
    2. অথবা ট্রীম কমান্ড দিয়ে পুণরায় স্পেস দিতে হবে। তারপর বৃত্তটির যেই অংশদুইটা কাটতে হবে তাদের উপর পর্যায়ক্রমে ক্লিক করতে হবে। সীমানা নির্ধাণ না করে পুণরায় স্পেস দিলে, যেটা কাটতে হেব তার কোন বিন্দুতে ক্লিক করলে, এই দুই দিকের প্রথম দু্ইটি সীমানাকে সংক্রিয়ভাবে সীমানা ধরে ট্রীম হবে।
  35. বি:দ্র: রেইলিং এর কাজ শুরুর পুর্বে রেইলিং বা বারান্দা বা যেই লেয়ারে হবে, সেই লেয়ার অবশ্যই কারেন্ট বা সচল করে নিতে হবে। যাতে করে ড্রয়িং করলে সরাসরি ঐ লেয়ারেই হয়। la দিয়ে লেয়ার কমান্ডের মাধ্যমে বা রিবন মেনু থেকে এই কাজ করা যায়।

Card image cap
AutoCAD tutorial-11
engr.tushar - 26 May 2013
    1. আমরা দুইটি ওয়াল,কলাম এবং রেইলিং করেছি। এখন বারান্দার জন্য 5” দেয়াল করবো। এই দেয়ালটি 3’-4” দুরে আছে দেয়ালের নিচের শেষ মাথা থেকে। এখন যেই কাজ করতে হবে তা হলো
    2. গত পর্ব পর্যন্ত আমরা নিচের মত ড্রয়িং করেছিলাম।
    3. এখন আমরা ডান দিকের উপরের বাকা দেয়াল এবং জানালা করবো।
    4. প্রথমে লাইন কমান্ড এক্টিভ করে উপরের কলামের ডানের-উপের কোনাতে ক্লিক করি
    5. এবার মাউস উপরেরদিকে নিয়ে 5'7-1/4 লিখে স্পেস দেই।
    6. এখন রোটেট কমান্ড দিয়ে 45 ডিগ্রি ঘোরাতে হবে।
    7. ESC দিয়ে লাইন কমান্ড থেকে বের হয়ে আসি
    8. এবার রোটেট কমান্ড চালু করার জন্য ro লিখে স্পেস বা এন্টার দেই। রোটেট বা ঘোরানোর জন্য নিচের ধাপগুলি প্রয়োজন
      1. যেই অবজেক(গুলি) ঘোরাতে চাই সিলেক্ট করতে হবে। এই ক্ষেত্রে লাইনের উপরে ক্লিক করি। উইন্ডো আকারে সিলেক্ট করি। এবার স্পেস দেই। স্পেস দেয়ার অর্থ হলো , সিলেক্ট করার কাজ শেষ।
      2. এবার কোন বিন্দুর সাপেক্ষে ঘুরবে সেই বিন্দুতে ক্লিক করতে হবে। এখানে এইলাইনটির একদম নিচের বিন্দু ( কলামের উপর-ডানের বিন্দু) এর উপর ক্লিক করি।
      3. এবার কত ডিগ্রি ঘুরবে তা উল্লেখ করতে হবে। এখানে 45 লিখে স্পেস দিতে হবে। সাধারণত কোন পরিমাপ দিলে ঘড়ির কাটার বিপরিতে ঘোরে। তবে ঘড়ির কাটার দিকেও ঘোরানো যায়। ইউনিট সেটাপ থেকে এটা করা যা।
    9. এবার সর্ব উপরের 3'5-7/16" লাইনটা করবো। এই জন্য লাইন কমান্ড ব্যবহার করে, বাকা লাইনের শেষ বিন্দুতে ক্লিক করে, বামে মাউস নিয়ে 3'5-7/16" লিখে স্পেস দিতে হবে। সব সময় খেয়াল রাখবেন orhto অন আছে কিনা। না থাকে f8 চাত দিয়ে অন/অফ করতে হবে। এবার ESC দিয়ে কমান্ড থেকে বের হয়ে আসতে হবে।
    10. অফসেট কমান্ড দিয়ে এখন এই লানের সমান্তরাল 5" লাইন করবো।অফসেট কমান্ড আগেই সেখানো হয়েছে
    11. এখন ফিলেট কমান্ড ব্যবহার করে বাড়তি অংশ মুছে ফেলতে হবে।
    12. এই জন্য ফিলেট কমান্ড একটিভ করে ( f  দিয়ে স্পেস) 1 এবং 2 এর উপর ক্লিক করতে হবে।
    13. এবার ট্রিম কমান্ড একটিভ করে কলামের মধ্যের বাড়তি অংশ কেটে ফেলতে হবে। এটা যদিও আমাদের ড্রয়িং এ নাই। তবুও ট্রিম কমান্ড একবার দেখে নেওয়ার জন্য করছি। এই ক্ষেত্রে tr লিখে স্পেস দিতে হবে।
      1. এবার কলামের উপর ক্লিক করে স্পেস দিতে হবে। কেননা কলামের সাপেক্ষে লাইনটা কাটতে হবে।
      2. এবার কলামের ভেতরের লাইনের বাড়তি অংশের উপর ক্লিক করতে হবে।
    14. একদম উপরের 5" ওয়ালের বামের মুখ বন্ধ করতে হবে। লাইন কমান্ড দিয়ে আমরা এই কাজটি করে নেই
    15. এবার ডানের কলামের বামের-উপরের কোনা থেকে উপরের দিকে একটি লাইন আঁকি।
    16. এবার নিচের বাকা দেয়াল এবং কিছুক্ষন আগে করা লাইন ফিলেটের মাধ্যমে দুইটি লাইন ফিলেট করি
    17. এখন আমরা শিখবো জানালা করা।
    18. এই জন্য জানালা লেয়ার একটিভ করে নেই। দুই ভাবে করতে পারি
      1. উপরের টুলবার থেকে লেয়ার এর ড্রপডাউন থেকে window লেয়ার এর উপর ক্লিক করি
      2. লেয়ার কমান্ড ( la ) দিয়ে লেয়ার ডায়ালগ বক্স নিয়ে আসি। এবার উইন্ডো লেয়ার এর উপর ডাবল ক্লিক করি।
    19. এতে করে এখন নতুন যা কিছু ড্রয়িংক করবো তা এই লেয়ারে আসবে।
    20. তবে মনে রাখতে হবে অফসেট করলে লাইন কিন্তু যেইটার অফসেট করা হয়েছে, সেই লেয়ারে হবে,যেই লেয়ারই একটিভ থাকুক।
    21. যেই অবজক্ট বা উপাদানগুলির লেয়ার পরিবর্তন করতে চান, সেইগুলি সিলেক্ট করে, উপরের লেয়ার ড্রপ-ডাউন থেকে ঐ লেয়ারের উপর ক্লিক করলেই পরিবর্তন হয়ে যাবে।
    22. এবার লাইন কমান্ড একটিভ করি। আমরা জানালটাটি বাকা ওয়ালের উপরের লাইনের মাঝে করবো।
    23. তাই এবার SHIFT ধরে মাউসের ডান-বাটন ক্লিক করি। এবার নিচের মত মেনু আসবে

    1. এখান থেকে Midpoint এর উপর ক্লিক করি। এখন উপরের বাঁকা লাইনের উপর মাউস নিলে কার্সর মাঝে চলে যাবে এবং ত্রিভুজ আকৃতির দেখাবে। ত্রিভুজ মানে মধ্যখান। ক্লিক করলে লাইনের প্রথম বিন্দু নির্বাচন য়ে গেলি।
    2.  এবার ঐ বিন্দু থেকে নিচের বাঁকা লাইনের উপর লম্ব আঁকতে হবে। তাই আবার শিফট ধরে রাইট বাটন ক্লিক করি। মেনু থেকে Perpendicular এর উপর ক্লিক করতে হবে। তারপর নিচের লাইনের কাছে কার্সর নিয়ে ক্লিক করতে হবে।
    3. এবার এস্কেপ (ESC) দিয়ে লাইন কমান্ড থেকে বের হয়ে আসি।
    4. এখন অফসেট কমান্ডের সাহায্যে এই নতুন লাইনের দুই দিকে 1'-6" করে অফসেট করি।
    5. এখন মাঝের ছোট লাইনটি মুছে ফেলি। দুই ভাবে মুঝতে পারি
      1. লাইন সিলেক্ট করে e লিখে স্পেস। ই- তে ইরেজার হয়।
      2. সিলেক্ট করে কি-বোর্ড এর ডিলিট বাটনে চাপ দেয়া।
    6. এবার ট্রিম করে জানালার জন্য ফাকা করবো। এই ট্রিম আগের ট্রিম কমান্ডের মতই, শুধু একটু টেকনিক আলাদা
      1. ট্রিম কমান্ড একটিভ করি tr লিখে স্পেস দিয়ে
      2. এবার আবার স্পেস দেই। এখানে কোনটার সাপেক্ষে কাটতে হবে তা নির্বাচন না করেই স্পেস দিয়েছি। যাতে করে যেই লাইনগুলির উপর ক্লিক করবো, ক্লিক করা বিন্দু থেকে দুরে লাইন বরাবর যেই দুই দিকে বাধা পাবে তার মাঝের অংশ কেটে ফেলবে।
      3. এখনে আমরা যেই অংশে জানালা হবে, মানে কিছুক্ষন আগে করা ছোট দুই লাইনের মাঝে।
      4. তাই এই মাঝের বাকা দুই লানের উপর ক্লিক করতে হবে।

  1. এখন লাইন কমান্ড দিয়ে 1 ও 2 এর উপর ক্লিক করতে হবে।
  2. স্পেস দিয়ে আবার লাইন কমান্ড একটিভ করতে হবে। উল্লেখ্য কোন কমান্ড একটিভ না থাকলে, সেই অবস্থায় স্পেস দিলে আগের কমান্ড একটিভ হবে।
  3. এখন 3 ও 4 এর উপর ক্লিক করতে হবে।
  4. এইবার এই দুই লাইন থেকে ভেতরের দিকে 1.5" করে অফসেট করতে হবে।
    1. অফসেট কমান্ড একটিভ করি ( o লিখে স্পেস )।
    2. দুরত্ব হিসাবে 1.5 লিখে স্পেস দেই
    3. এবার জানালার উপরের লাইনের উপর ক্লিক করে তারও উপর দিকের যেকোন ফাকা স্থানে ক্লিক করি।
    4. এবার জানালার নিচের লাইনে উপর ক্লক করে তার নিচের দিকের যেকোন ফাকা স্থাকে ক্লিক করি।
    5. এবার ESC দিয়ে কমান্ড থেকে বের হয়ে আসি।

Card image cap
অটোক্যাড ভিডিও
Ashraful Haque - 09 Jan 2014

বাংলাতে অটোক্যাড ভিডিও টিউটোরিয়াল

1. বেসিক অটোক্যাড http://www.youtube.com/watch?v=6jyVNCaQ-iI

2. অটোক্যাড প্রিন্ট পদ্ধতি http://www.youtube.com/watch?v=mFE-A6ztd-k&feature=youtu.be 

Header
Info card title

www