বাড়ি

মালিকের অবহেলাতে বাড়ির দুর্দশা

একটা বিল্ডিং ডিজাইনে যে পরিমাণ ফ্যাক্টর অফ সেফটি ধরা হয়, তাতে তা কলাপ্স করার সম্ভাবনাই থাকে না।
কিন্তু তারপরেও এতো বিল্ডিং কেন ধসে পড়ছে???? আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে এর একটা এনালাইসিস।

ট্যাগ

সহজে বাড়ি নির্মান- KSRM

সহজে জেনে নিন বাড়ি তৈরির প্রক্রিয়া

১) ভালো জমি চেনা

বাড়ি বানানোর পরিকল্পনায় আপনার প্রথম ধাপ হবে উপযুক্ত জমি বেছে নেয়া। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত, আর সিদ্ধান্তটি নেবার আগে আপনার অবশ্যই কয়েকটি 

জরুরি বিষয় মাথায় রাখা উচিত। বিষয়গুলো হচ্ছে:

 

সাইট মোবিলাইজেশন ও ভূমি জরিপ (অধ্যায় ৪)

সাইট মোবিলাইজেশন প্রকৌশলীদের মধ্যে বহুল ব্যবহৃত শব্দ। বাংলা একাডেমীর অভিধান অনুযায়ী মোবিলাইজশব্দটির বাংলা অর্থ হলো-ব্যবহার বা দ্বায়িত্বে নিয়োজনের জন্য একত্র করা বা যুদ্ধার্থে সমবেত করা।প্রকৌশলীদের কাছে নির্মানাধীন যেকোন সাইট অনেকটা যুদ্ধক্ষেত্রের মতো। একটি ভবন নির্মাণ করতে বহু প্রতিকূল পরিবেশ-পরিস্থিতি পার হতে হয়। তাই যুদ্ধে জয়লাভের জন্য প্রয়োজন বিভিন্ন ধরণের লোকবল, মালামাল ও যন্ত্রপাতীর সমাবেশ। এই সমস্ত কিছুর একত্রীকরণই হলো সরঞ্জাম সন্নিবেশকরণ বা সাইট মোবিলাইজেশন।

বাড়ি নির্মাণে কতিপয় প্রয়োজনীয় বিষয়সমূহঃ

 

১) বাড়ি নির্মাণের পূর্বে করনীয় নিয়মাবলি সম্পর্কে ধারণা নেওয়া উচিত।

২) বাড়ি নির্মাণ খরচ নিরূপণ করা।

৩) নির্মাণ সামগ্রী সম্পর্কে ধারণা নেওয়া ।

৪) বাড়ি নির্মাণের সময় সাধারণ ভুলত্রুটি দূরীকরণ ও সাবধানতা সম্পর্কে ধারণা নেওয়া ।

৫) নির্মাণ ব্যাব - পনা  সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করা।

৬) ভবন / বাড়ী নির্মাণ মেরামত এবং নোনা ধরা সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয়ে ধারণা নিতে হবে  

৭) ভাল রাজমিস্ত্রি নিয়োগ করা উচিত।

বাড়ি নির্মাণে কতিপয় প্রয়োজনীয় বিষয়সমূহঃ

 

সাইট/ প্লট লে-আউট দেয়ার সময় সতর্কতাঃ 

১) সঠিকভাবে লে-আউট দেয়া না হলে বিল্ডিং –এর আকৃতি পরিবর্তিত হয়ে যাবে যা পরবতিতে ঠিককরা দুঃসাধ্য ব্যাপার।

২) লে-আউট দেওয়ার সময় বাড়ি বাহিরের মাপ ঠিক আছে কিনা ভালভাবে নজর দিতে হবে।

         সাইটে / প্লটে মাটি কাটার সময়ে সতরকতাঃ

১) মাটি কাটার সময় পার্শের দেয়ালগুলো সংরক্ষণের ব্যবস্থা নিতে হবে।

২) প্রয়োজনে সাইটের অবস্থান অনুযায়ী বল্লি অথবা শিট পাইলিং ব্যাবহার করা যেতে পারে।

প্লাস্টার নিয়ে কিছু কথা

প্লাস্টার বিভিন্ন ধরণের হয়।

১. জিপসাম প্লাস্টার ২. লাইম প্লাস্টার ৩. সিমেন্ট প্লাস্টার

তবে সিমেন্ট প্লাস্টার বেশি ব্যবহুত এবং বেশি পরিচিত। আজ এই ধরণের প্লাস্টার নিয়ে আলোচনা কর।

সিমেন্ট-বালি দিয়ে যেই প্লাস্টার করা হয় তাকে সিমেন্ট প্লাস্টার বলে। বিভিন্ন অনুপাতে সিমেন্ট ও বালি মিশিয়ে এর সাথে পানি যুক্ত করা হয়। তারপর এর মিশ্রণটি দিয়ে প্লাস্টার করা হয়। সিমেন্ট দিয়ে করা হয় বলে একে সিমেন্ট প্লাস্টার বলা হয়। বালি প্লাস্টার বলা হয় না কারণ বালির সাথে চুন মিশিয়েও প্লাস্টার করা হয়ে থাকে, তবে একে লাইম প্লাস্টার বলে।

এর প্রয়োগ পদ্ধতি

সাধারণ নিয়মাবলি

সাধারণ নিয়মাবলি

১। এমন কোন বিষয়ে আলোচনা করা যাবে না যা বাংলাদেশের অথবা আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে।

২। লেখা মুলত বাংলাতে হতে হবে, তবে ইংরেজির ব্যবহারও করা যাবে এবং তা অবশ্যই কোন সমস্ত বিষয়বস্তুর ৩০ শতাংশের বেশি হতে পারবে না

৩। মিথ্যা তথ্য দিয়ে কোন বিষয় আলোচনা করা যাবে না।

৪। ইঞ্জিনিয়ার, ইঞ্জিনিয়ারিং এর সম্পর্কিত লেখাই শুধু প্রকাশ করা যাবে। এর বাইরে কোন বিষয়ে আলোচনা করা যাবে না।

৫। কোন পর্ণ চিত্র বা ভিডিও বা অডিও বিষয় প্রকাশ বা আলোচনা করা যাবে না।