ভাড়া দেয়ার পুর্বে ভাড়াটিয়ার সাথে চেইক করে নিন

চুক্তি নামা : নিচের বিষয়গুলি চুক্তিনামাতে উল্লেখ থাকতে হবে।

  • তারিখ
  • বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়ার নাম
  • বাড়ির ঠিকানা
  • ভাড়ার নিয়মাবলী
  • ভাড়ার মুল্য বা টাকার পরিমাণ
  • সিকিউরিটি মানি / ডিপোজিট

এডভান্স ভাড়া: অনেক সময় অগ্রীম ভাড়াও নেয়া হয়ে থাকে। এক থেকে তিন মাস পর্যন্ত সাধারাণত ভাড়া এডভান্স হয়ে থাকে। সিকিউরিটি মানি ফেরতযোগ্য। বাড়ির কোন ক্ষতি হলে বাড়ির মালিক এই ভাড়া কেটে রাখতে পারবেন।

চাবি: এটি খুব গুরুত্বপুর্ন। ভাড়াটিয়াকে চাবি বুঝিয়ে দিতে হবে এবং প্রতিটি চাবির সাথে ট্যাগ লাগাতে হবে। যেমন প্রধাণ ফটক, বেড-১, স্টৌর, ইত্যাদি। 

মিটার রিডিং: ভাড়া দেয়া-নেয়ার সময় ইলেক্ট্রিক মিটার এর রিডিং অবশ্যই দুই পক্ষকেই লিখে রাখতে হবে। প্রতি ভাড়াটিয়ার জন্য অবশ্যই আলাদা আলাদা মিটার থাকতে হবে। 

অন্যান্য: ভাড়াটিয়াকে বাড়িওয়ালার কিছু যন্ত্রপাতি সম্পর্কে বলে দিতে হবে। যেমন গিজার, পানির মিটার, ইলেক্ট্রিক লাইন, ইত্যাদি। ভাড়াটিয়া দেখে নিবে যে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা আছে কিনা, উভয় পক্ষের মোবাইল নাম্বার উভয় পক্ষের কাছে থাকতে হবে। 

আশেপাশের পরিবেশ সম্পর্কে ভাড়াটিয়ার খবর নেওয়া উচিত। বাড়িওয়ালা পরিবেশ সম্পর্কে ভাড়াটিয়াকে অবহিত করবেন। 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *