পানি

পান করার উপযোগী যে কোনো পানি কংক্রিট তৈরির কাজে উপযুক্ত। তবে কোনো কোনো পানি পান না করা গেলেও নির্মাণকাজে ব্যবহার করা যায়। পানিতে অতিরিক্ত অপদ্রব্য শুধু জমাট বাঁধার সময় এবং কংক্রিটের শক্তি কমায় না বরং স্থায়িত্ব, রডে মরিচা ইত্যাদি সমস্যা দেখা দেয়। তাই নির্মাণকাজের জন্য পানির নির্বাচনও গুরুত্বপূর্ণ।

৪.১ নির্মান কাজে পানির ব্যবহার

  1. কংক্রিট তৈরী করতে।
  2. প্লাস্টার, পয়েন্টিং, গাথুনি প্রভৃতি কাজের জন্য মসলা তৈরী করতে।
  3. খোয়া, পাথর, ইট, দেয়াল প্রভৃতি ভেজানোর কাজে।
  4. কিউরিং এর কাজে।
  5. বালি ভরাটের পর দৃঢ় করার কাজে।
  6. যন্ত্রপাতি ও ইকুইপমেন্ট পরিষ্কার করার কাজে।
  7. নির্মান ক্ষেত্র পরিষ্কার করার কাজে।

৪.২ পানির কাজ

কংক্রিট, গাথুনি, প্লাস্টার প্রভৃতি কাজে পানি ব্যবহার করা হয়। এ সকল ক্ষেত্রে পানির কাজ হলো-

  1. সিমেন্ট পানির সংস্পর্শে আসলে রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে জমাট বাঁধে এবং শক্ত ও শক্তিশালী হয়।
  2. পূরক পৃষ্ঠকে ভিজিয়ে সংলগ্নতার ক্ষেত্র তৈরী করে। সিমেন্ট পেস্ট শুস্ক পৃষ্ঠের চেয়ে ভেজা পৃষ্ঠে ভালভাবে যুক্ত হয়।
  3. বিভিন্ন উপাদান সহযোগে নমনীয় সমসত্ব মিশ্রণ তৈরী করে এবং ইপ্সিত স্থানে ঢালাইয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কার্যসুবিধা প্রদান করে।
  4. সিমেন্টের সাথে মিশ্রিত হয়ে আবদ্ধকারী পেস্ট তৈরী করে যা লোহার সাথে কংক্রিটের উপাদানগুলোকে যুক্ত রাখে।
  5. বালি ও খোয়ার মধ্যে পিচ্ছিলকারক (Lubricant) পদার্থ হিসেবে কাজ করে।

যদি খোয়া, পাথর, ইট প্রভৃতি শুস্ক অবস্থায় ব্যবহার করা হয় তবে কংক্রিট বা মসলায় ব্যবহৃত পানি শোষণের ফলে পানি স্বল্পতার সৃষ্টি হবে এবং সিমেন্টের রাসায়নিক বিক্রিয়া বিঘ্নিত হবে। এ জন্য ব্যবহারের পূর্বেই খোয়া, পাথর, ইট, দেয়াল প্রভৃতি ভালোভাবে পানি দিয়ে ভেজানো প্রয়োজন।

৪.৩ নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত পানির গুণাগুণ

কংক্রিট, মসলা প্রভৃতি কাজে ব্যবহৃত পানির গুণাগুণ নিম্নরূপ-

  1. পানযোগ্য পানি ব্যবহার করতে হবে।
  2. এমন পানি ব্যবহার করতে হবে যেন তা সিমেন্টের সাথে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় সহায়তা করে।
  3. পানি পরিষ্কার ও পরিশ্রুত হওয়া উচিৎ।
  4. কংক্রিট বা লোহার রডের জন্য ক্ষতিকারক পদার্থসমূহ ( যেমন- আয়রন, লতা-পাতা ইত্যাদি) থেকে মুক্ত হতে হবে।
  5. তেল, তৈলাক্ত পদার্থ, এসিড, ক্ষার, জৈব, অজৈব পদার্থ প্রভৃতি থেকে মুক্ত হতে হবে।
  6. বেশী দুষিত পানি জমাট বাঁধার ক্ষেত্রে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে বা লোহার রডে মরিচা ধরিয়ে দিতে পারে।
  7. লবণাক্ত পানি বা সমুদ্রের পানি ব্যবহার করা নিষিদ্ধ। কারন এ পানি লোহায় মরিচা ধরিয়ে দিতে পারে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *