বিভিন্ন ধরনের ইটের বন্ড

দেয়ালের গাঁথুনিতে ব্যবহৃত বন্ড

কারিগরি নিয়ম-কানুন না মেনে ইট বা পাথর গাঁথুনি করলে তা টেকসই হয় না। স্থায়িত্ব, সৌন্দর্য, আর্থিক দিক, ভারবহন ক্ষমতা ইত্যাদি বিবেচনায় দেয়াল গাঁথুনিতে বন্ড গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এ অধ্যায়ে দেয়ালের গাঁথুনিতে ব্যবহৃত বন্ড সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

ইটের গাঁথুনির বন্ড

গাঁথুনিতে ইট সাজানো বা জোড়া দেয়ার কৌশলকে বন্ড বলে। এতে ইটকে এভাবে জোড়া দেওয়া হয় যাতে উপরের বা নিচের দুই স্তরের খাড়া জোড়া একই খাড়া লাইনে না থাকে।

বন্ডের প্রয়োজনীয়তা

  1. কাঠামো স্থায়ী ও শক্তিশালী করা।
  2. ইটের মধ্যকার বন্ধন সুদৃঢ় করা।
  3. গাঁথুনিতে উল্লম্ব বা খাড়া জোড়া পরিহার করা।
  4. নির্মাণকাজ দ্রুত করা।
  5. দেয়ালের পৃষ্ঠদেশের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা।
  6. শিয়ার প্রতিরোধ করা।
  7. দেয়ালের উপর আসা লোড বা ভার সমভাবে ও নিরাপদে ছড়িয়ে দেয়া।

বন্ডের প্রকারভেদ

গাঁথুনিতে ব্যবহৃত বন্ডকে নিম্নলিখিতভাবে ভাগ করা হয়। যথা-

  1. স্ট্রেচার বন্ড (Stretcher bond)
  2. হেডার বন্ড (Header bond)
  3. ইংলিশ বন্ড (English bond)
  4. ফ্লেমিশ বন্ড (Fleimsh bond)
  5. গার্ডেন ওয়াল বন্ড (Garden wall bond)
  6. রেকিং বন্ড (Raking bond)
  7. ডাচ বন্ড (Dutch bond)
  8. ফেসিং বন্ড (Facing bond)
  9. ইংলিশ ক্রস বন্ড (English cross bond)
  10. ব্রিক-অন-এজ বন্ড (Brick on edge bond)

বাংলাদেশে প্রচলিত কয়েকটি বন্ডে ইট সাজানোর পদ্ধতি

১.         স্ট্রেচার বন্ড : এই প্রকার বন্ডে প্রতিটি স্তরে দেয়ালের দৈর্ঘ্য বরাবর ইটকে স্ট্রেচার হিসেবে স্থাপন করা হয়। কেবলমাত্র অর্ধ ইট বা ১২.৫ সে.মি পুরুত্বের দেয়ালে নির্মাণে এ বন্ড ব্যবহার করা হয়। এই ধরনের বন্ডে গাঁথুনিতে যথাযথ বন্ড সৃষ্টি হয় না। অর্ধ ইট এর বেশি পুরুত্বের দেয়ালে এ বন্ড ব্যবহার করা যায় না। একে রানিং বন্ডও বলে।

চিত্র: স্ট্রেচার বা রানিং বন্ড

২.         হেডার বন্ড : এই পদ্ধতিতে প্রতিটি স্তরের প্রতিটি ইটকে হেডার হিসেবে স্থাপন করা হয়। এক ইটের দৈর্ঘ্যের সমান বা ২৫ সে.মি পুরুত্বের দেয়াল বা বাঁকা দেয়াল নির্মাণের ক্ষেত্রে এই বন্ড বেশি উপযোগী।

চিত্র: হেডার বন্ড

৩.         ইংলিশ বন্ড : এই প্রকার বন্ডে এক স্তর হেডারের উপর অপর স্তর স্ট্রেচার ইট স্থাপন করা হয় অর্থাৎ এক স্তরে ইটগুলো লম্বালম্বিভাবে এবং অপর স্তরে ইটগুলো আড়াআড়িভাবে স্থাপন করা হয়। এ বন্ড খুবই শক্তিশালী এবং ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। খাড়া জোড়াগুলো যাতে একই উলম্ব রেখায় না পড়ে সেজন্য হেডার স্তরের প্রথম হেডার ইটের পর একটি কুইন ক্লোজার বসাতে হয়।

চিত্র: ইংলিশ বন্ড

৪.         ফ্রেমিশ বন্ড : এই বন্ডে একই স্তরে একটি ইট লম্বালম্বি ও পরেরটি আড়াআড়ি করে পাশাপাশি স্থাপন করা হয়। ফ্লেমিশ বন্ডে প্রতিটি স্তরে হেডার ইটের কেন্দ্র বরাবর এর উপরের এবং নিচের স্তরের স্ট্রেচার ইটের কেন্দ্র থাকবে। প্রতিটি হেডারের দুই পাশে একটি করে স্ট্রেচার ইট থাকবে। ইংলিশ বন্ড থেকে এটি দেখতে সুন্দর হলেও অধিক সংখ্যক ক্লোজার ব্যবহার করার কারণে এই বন্ড দুর্বল হয়।

চিত্র: ফ্লেমিশ বন্ড

৫.         গার্ডেন ওয়াল বন্ড : গার্ডেন ওয়াল, কম্পাউন্ড ওয়াল ও বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণের জন্য যে বন্ড ব্যবহৃত হয় তাকে গার্ডেন ওয়াল বন্ড বলে। সাধারণত ২৫ সে.মি বা এক ইট পুরু দেয়ালের ক্ষেত্রে এ বন্ড ব্যবহার করা হয়। ইংলিশ বা ফ্লেমিশ উভয় বন্ডে এ দেয়াল গাঁথা যায়।

চিত্র: গার্ডেন ওয়াল বন্ড

১২.৫ ক্লোজার (Closure)

নির্দিষ্টভাবে কাটা ইটের টুকরা বিশেষ, যার একটি লম্বা পাশ অক্ষত থাকে তাকে ক্লোজার বলে। ইটের গাঁথুনিতে যাতে খাড়াভাবে জোড়া না পড়ে সেজন্য ক্লোজার ব্যবহার করা হয়। ক্লোজার তৈরিকৃত অবস্থায় পাওয়া যায় না, রাজমিন্ত্রি কাজের সময় বাশুলী দ্বারা কেটে প্রয়োজনীয় আকার ও আকৃতির ক্লোজার তৈরি করে।

১২.৬ ক্লোজারের প্রকারভেদ

ক্লোজার প্রধানত দু’প্রকার। যথা-

  1. কুইন ক্লোজার : ইটকে লম্বালম্বিভাবে কেটে সমান দুইভাবে ভাগ করে যে ক্লোজার তৈরি করা হয় তাকে কুইন ক্লোজার বলে। আসলে অর্ধেক প্রস্থ বিশিষ্ট পূর্ণ দৈর্ঘ্যের ইটই কুইন ক্লোজার। একে সাধারণত কুইন হেডারের পাশে স্থাপন করা হলো।
  2. কিং ক্লোজার : পূর্ণ ইটের প্রান্তের প্রস্থের অর্ধেক কোণাকার করে কেটে ফেললে যে ক্লোজার পাওয়া যায় তাকে কিং ক্লোজার বলে। অন্য কথায় লম্বাপাশ অক্ষত রেখে ত্রিভুজাকার একটি খন্ড কেটে নিলেই কিং ক্লোজার পাওয়া যাবে। ত্রিভুজাকার খন্ডটির অতিভুজ হবে ইটের দৈর্ঘ্যের মধ্য হতে প্রস্থের মধ্য পর্যন্ত। এই ক্লোজার সাধারণত জোড়ের সন্তোষজনক প্রতিস্থাপনের জন্য দরজা-জানালার পাশে ব্যবহার করা হয়।

চিত্র: বিভিন্ন প্রকার ক্লোজার

১২.৭ বিভিন্ন প্রকার বন্ডের ব্যবহার ক্ষেত্র

নিচে বিভিন্ন প্রকার বন্ডের ব্যবহার উল্লেখ করা হলো-

ক্রমিক নং বন্ডের নাম বন্ডের ব্যবহার ক্ষেত্র
স্ট্রেচার বন্ড পার্টিশান দেয়াল, স্লিপার দেয়াল, ডিভিশন দেয়াল ও চিমনি স্টেকে।
হেডার বন্ড বক্রাকৃতির দেয়ালে ও ভিত্তির ফুটিং এ।
ইংলিশ বন্ড অর্ধ ইটের অধিক পুরুত্বের যে কোন দেয়ালে।
ফ্লেমিশ বন্ড দেয়ালের কারুকার্য ও সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে।
ফেসিং বন্ড দেয়ালে ফেসিং ও ব্যাকিং এ যদি বিভিন্ন প্রকার ইট ব্যবহৃত হয়।
ইংলিশ ক্রস বন্ড দেয়ালের পৃষ্ঠদেশের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে।
ব্রিক-এজ বন্ড গার্ডেন ওয়াল, পার্টিশন ওয়াল, কম্পাউন্ড ওয়াল, রাস্তার সোলিং এ।
ডাচ বন্ড দেয়ালের কোণায়।
রেকিং বন্ড রাস্তার সোলিং এ।
১০ গার্ডেন ওয়াল বন্ড সীমানা দেয়াল, গার্ডেন দেয়াল ও কম্পাউন্ড দেয়ালে।

 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *