Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

Category: Blog

হাই স্ট্রেন্থ কংক্রিট

এই কংক্রিট এর চাপ শক্তি ৬০০০ পি.এস.আই এর বেশি হয়ে থাকে। ৩৫% বা তার নিচে এর পানির অনুপাত হয়ে থাকে। সিলিকা গ্যাস ব্যবহার করা হয় সিমেন্ট এর মুক্ত ক্যালসিয়াম হাইড্রোক্সাইড এর পরিবর্তন, যা কংক্রিট এর সিমেন্ট-এগ্রিগেট বন্ধন শক্তি কমিয়ে ফেলে। কম পানি এবং সিলিকা গ্যাস ব্যবহার এর কারণে এর কার্যউপযোগীতা কমে যায়। যার কারণে এর

নরমাল বা সাধারণ কংক্রিট

শুধুমাত্র পানি, সিমেন্ট এবং এগ্রিগেট দিয়ে তৈরি কংক্রিটকে নরমাল বা সাধারণ কংক্রিট বলে। এর সেটিং টাইম ৩০-৯০ মিনিট, নির্ভর করে আবওহাওয়ার উপর, সিমেন্ট এর সুক্ষতার বা মিহিতার উপর। ৭ দিন থেকে এর শক্তি গঠন হওয়া শুরু করে এবং এই সময় শক্তি হয় সাধারণত ১০ এম.পি.এ (১৪৫০ পি.এস.আই) থেকে ৪০ এম.পি.এ ( ৫৮০০ পিএসআই)। ২৮ দিনে

ডি.পি.সি ( ড্যাম্প প্রুফ কোর্স)

DPC ( Damp proof course ) এটি অভেদ্য উপাদান দিয়ে তৈরি একটানা স্তর আভ্যন্তরিণ দেয়াল এর জন্য শুধুমাত্র আনুভুমিক ডি.পি.সি ব্যবহার করা হয়। ( বিটুমিন এর ক্ষেত্রে ১৭৫ কেজি প্রতি বর্গ সেন্টিমিটার বল) তিন আস্তর বিটুমিন দেয়া হয়। ডি.পি.সি ব্যবহার এর পুর্বে মর্টার এর আস্তর দিতে হবে। ডি.পি.সি এর প্রকারভেদ দুই ধরণের ডি.পি.সি হয়    

Problem with Bengali Font?

  Problem with Bengali Font?   If you are using Windows Vista or later version, the contents of this site are compatible with the system fonts you already have in you computer. For Windows XP or earlier version you have to install a Unicode font which supports Bengali. It’s a matter of few seconds to

কংক্রিট এর সেটিং

কংক্রিট এর সেটিং নিচের বিষয় কংক্রিট এর সেটিং এ প্রভাব রাখে পানি ও সিমেন্ট এর অনুপাত প্রয়োজনীয় তাপমাত্রা সিমেন্ট এর পরিমাণ সিমেন্ট এর ধরণ সিমেন্ট কত মিহি আদ্রতা এডমিকচার এগ্রীগেটের ধরণ এবং পরিমাণ

কংক্রিট স্ল্যাব

সংজ্ঞা: কলাম আথবা দেয়াল এর উপর অবস্থিত সমতল এবং চ্যাপ্টা বস্তু। এটি হাটা চলাফেরার এবং ভার বহনকারী হিসাবে ব্যবহূত হয়। কংক্রিট এর কাজ: সমতল পৃষ্ঠ দেয়া ভার বহন করা শব্দ, তাপ এবং অগ্নি প্রতিরোধক হিসাবে কাজ করা উপরের স্ল্যাব নিচের তলার সিলিং হিসাবে পরিচিত স্ল্যাব এবং সিলিং এর মধ্যবর্তী অংশ বিল্ডিং এর উপযোগী অংশ স্ল্যাব

আর সি সি ডিজাইন এর বিভিন্ন পদ্ধতি

স্ট্রেংথ ডিজাইন মেথড (USD) আল্টিমেট স্ট্রেংথ পদ্ধতিতে কাঠামোর উপাদান কে ফেইল বা ভাঙার অবস্থায় বিবেচনা করা হয়। এসিআই কোডে এই পদ্ধতিকে বেশি বেবহার করে বা জোর দেয়। ওয়ার্কিং স্ট্রেস ডিজাইন (WSD) এই পদ্ধতি ইলাস্টিক থিওরি এর উপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত। বর্তমানে এই পদ্ধতি বেবহার করা হয় না। লিমিট স্টেট ডিজাইন (LSD) এটি ইউএসডি এর থেকে

ইটের দেওয়ালের ভিতরের পৃষ্ঠে সিমেন্ট প্লাস্টারের

ইটের দেওয়ালের ভিতরের পৃষ্ঠে সিমেন্ট প্লাস্টারেরকাজের হিসাবচুন বা সিমেন্ট মর্টার দ্বারা দেয়ালের পৃষ্ঠমেঝেতে সচরাচর 12 মি.মি পুরু আস্তর করা হয়। প্লাস্টার কাজের একক বর্গমিটার।প্লাস্টারকৃত ওয়ালকে নিরেট দেওয়ালহিসাবে ধরে (দৈর্ঘ্য X প্রস্থ বা দৈর্ঘ্য Xউচ্চতা বা প্রস্থ X উচ্চতা) পরিমাপনিয়ে বর্গমিটারে হিসাব করা হয়।এরপর দেওয়ালেরমধ্যের ফাঁকা অংশের পরিমাণ নির্ণয় করে প্রকৃতপরিমাণ বের করতে হয়। দেওয়ালের ফাঁকা