বাড়ির বয়স নির্ধারণরে সম্ভাব্য পদ্ধতি

আমাদের মনে অনেক সময় ইচ্ছা জাগে একটি বাড়ির বয়স জানার জন্য। কিন্তু সেই পদ্ধতি যার মাধ্যমে আমরা এটা জানত পারি। নিচে এদের কিছু দেওয়া হলো

১. স্থাপত্যিক বৈশিষ্ট্য দেখে। সাধারণত এই বৈশিষ্টগুলি সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তন হয়। এবং সাধারণত একই সময়ের বাড়িগুলি কিছুটা একই রকমের হয়।

২. নির্মাণ সামগ্রী। নির্মান সামগ্রী দেখেও অনেক সময় বাড়ির বয়স সম্মন্ধে জানা যায়। কেননা সময়ের সাথে সাথে নতুন নতুন উপাদান আবিস্কার হয়। এবং এদের ব্যবহার বাড়তে থাকে। যেমন এখন সিমেন্ট ব্যবহার করা হয়, আগু চুন ব্যবহার করা হত।

৩. বাড়ির নাম দেখে। অনেক সময় বাড়ির নাম করা হয় বাড়ির মালিক বা তাদের পিতা-মাতা-ছেলে-মেয়ের নামের উপর। তাই এই নাম থেকেও জানা যেতে পারে।

৪. আশেপাশের থেকে। আশেপাশের মানুষ থেকেও অনেক সময় জানা যায়। কেননা তারা এই বাড়িটি সম্মর্কে অনেক কিছু শুনেছে বা দেখেছে।

৫. ভুমি অফিস। ভুমি অফিস থেকেও জানা যায়। যেমন বাড়ির ট্যাক্স কবে থেকে দেওয়া হয়েছে তা থেকে জানা যায়।

৬. ইলেক্ট্রিক্যাল সামগ্রী থেকেও জানা যায়। যেমন পাইপ, তার ইত্যাদি

৭. ফ্লোর ফিনিশিং দেখে। যেমন টাইল্‌স, মোজাইক ইত্যাদি

৮. মেকানিক্যাল সিস্টেম। যেমন এসি, ফায়ার, ভেনটিলেশন ইত্যাদি দেখে

৯. ছাদের ফিনিশিং। ছাদের ফিনিশিং দেখেও বোঝা যায়। যেমন পানি-রোধক করেছে কিভাবে তার উপর ভিত্তি করে।

১০. সেনাটারি কাজের মালামাল দেখেও বাঝা যায়। অনেক সময় পাইপের গায়ে তারিখ দেওয়া থাকে।