রঙের সময় যা করা যাবে ও যাবে না
রঙের সময় যা করা যাবে ও যাবে না
engr.tushar at তারিখ 21 Feb 2014 সময়: 14:07

করতে হবে:

  1. সার্ফেস বা তলা শুষ্ক থাকতে হবে.
  2. 120 নম্বর ওয়াটার পেপার দিয়ে ভালভাবে ঘষতে হবে। তারপর এটা ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। 
  3. বাহিরের পুরাতন রঙের উপর করার জন্য পুরাতন রঙ তুলে ফেলে পানি দিয়ে ভালভাবে মুছে ফেলতে হবে এবং দুই-তিনদিন রৌদ্রজ্বল দিনে শুকাতে হবে। 
  4. অভ্যন্তরের জন্য রেডিমিক্স পুটি ব্যবহার করতে হবে এবং বাহিরের জন্য সিমেন্ট বেজ পুটি ব্যবহার করতে হবে ফিলার হিসাবে। 
  5. সঠিক রঙের জন্য সঠিক থিনার ব্যবহার করতে হবে।
  6. রঙ ব্যবহারের পুর্বে ভালভাবে তা ঘুটে নিতে হবে
  7. ঘরের মধ্যে বাতাস ও আলো চলাচলের ব্যবস্থা রখতে হবে
  8. এক কোট  বা আস্তর থেকে অন্য আস্তরের মধ্যে যতটুকু সময় প্রয়োজন ততটুকু দিতে হবে। এই আস্তর সিলার,প্রাইমার,পুটি,অথবা রঙ যেকোন কিছু হতে পারে। 
  9. যেকোন রঙ ব্যবহারের পুর্বে এই রঙের নিয়মাবলী ভালভাবে জেনে নিতে হবে। 
  10. রঙের বালতি পুরাটা শেষ না হলে কাজের পর আবার ভালভাবে এর মুখ বন্ধ করতে হবে, যাতে করে এর মধ্যে বাতাস ঢুকতে না পারে। 
  11. রঙের গায়ে লেখা সময়ের মধ্যেই অবশ্যই রঙ ব্যবহার করে ফেলতে হবে। নাহলে পরে ব্যবহার করলে সেই রং স্থায়ী হবে না।

 

করা যাবে না:

  1. ড্যাম্প, স্যাঁতস্যাঁতে, নোনা স্থানে রঙের প্রলেপ বা আস্তর দেয়া যাবে না 
  2. পুর্ববর্তি আস্তর না শুকানো পর্যন্ত বা না রেডি হওয়া পর্যন্ত পরবর্তি আস্তর দেওয়া যাবে না। 
  3. রঙের সাথে প্রয়োজনীয় ও যথাযথ থিনার ছাড়া অন্য কোন কিছু মেশানো যাবে না। যেমন চকপাওডার,চুন ইত্যাদি মেশানো যাবে না। 
  4. কাজের পর ব্রাশ বা রোলার অবশ্যই থিনার দিয়ে বা পানি দিয়ে ভালভাবে ধুয়ে রাখতে হবে। 
  5. স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়াতে রঙের কাজ না করাই ভাল 
  6. রঙ অতিরিক্ত পাতলা করা যাবে না বা বেশি পরিমানে থিনার ব্যবহার করা যাবে না 
  7. রঙের কাজের সময় ধুমপান করা যাবে না। কেননা রঙ একটি দাহ্য পদার্থ। 
  8. রঙ এবং এর আনুসাঙ্গিক মালামাল আগুন থেকে দুরে রাখতে হবে। 
  9. শিশুদের নাগালের বাইরে রাখতে হবে রঙ, থিনার ও অন্যান্য পদার্থ 
  10. হাতে ভারী কিছু থাকা অবস্থায় রঙের কাজ করা যাবে না। 
  11. চোখের মধ্যে রঙের কোনকিছু গেলে অবশ্যই ভালভাবে পানি দিয়ে ধুয়ে দিতে হবে এবং ডাক্তারের কাছে যেতে হবে। 
  12. রঙের কাজের সময় এবং কাজ শেষ হওয়ার সাথে সাথেই দরজা-জানালা বন্ধ করা যাবে না। ভেতরের গ্যাস বা গন্ধ না যাওয়া পর্যন্ত দরজা-জানালা বন্ধ রাখতে হবে। 
সুত্র: বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ