বৃষ্টির পানি ধরে রাখার উপায়।

বৃষ্টির পানি ধরে রাখার দুই ধরনের উপায় আছে:

১) ভূ-পৃষ্ঠের পানি ধরা              

২) ছাদের পানি ধরা

নিচে বিভিন্ন ধরনের উপায় বর্ণনা করা হল

১। ভূ-পৃষ্ঠের পানি

গ্রাম এলাকাতে বৃষ্টির পানি ভূ-পৃষ্ঠা দিয়ে প্রবাহিত হয়। সঠিক উপায়ে এই পানি ধরে রাখা যায় এবং পরে তা ব্যাবহার করা যায়।

২। ছাদের পানি

এই পদ্ধতিয়ে ছাদ ধারক হিসাবে কাজ করে। এই পদ্ধতিতে ছাদ বৃষ্টির পানি ধরে এবং পরে তা জলধরে জমা রাখা হয়। এই পদ্ধতিতে তুলনামুলিক খরচ কম। এই পদ্ধতি ঠিক মত কার্যকর করা গেলে মাটির পানির লেভেল বৃদ্ধি পায়।

২.১ ছাদের পানি ধারণ পদ্ধতির বিভিন্ন অংশ

নিচে সাধারণতো যেই জিনিস গুলি থাকে তার একটি নমুনা নিচে দেয় হল।

Rainwater harvesting

ছবি ১: পানি ধারণের বিভিন্ন অংশ

এই পদ্ধতির কিছু বিশেষ অংশ নিচে দেওয়া হল।

  • ধারক
  • বাহক
  • প্রথম দরজা
  • ছাকনি

ধারক

যেখানে বৃষ্টি সরাসরি পড়ে। এটা ঢালু বা সমতল চাদ হতে পারে। হতে পারে টিনের বা আর সি সি এর। এটি বৃষ্টির পানিকে প্রথমে ধরে।

বাহক

ধারক পানি ধরার পর কোনও কিছুর মাধ্যমে এই পানিকে স্থানান্তরিত করবে। যার মাধ্যমে স্থানান্তর হয় বা যে স্থানান্তর করে তাকে বাহক বলে।

প্রথম দরজা

এটি প্রাথমিক বৃষ্টির পানিকে ধুয়ে ফেলে দেয়। যাতে করে দূষিত কোনকিছু বা ময়লা কোনও কিছু এর সাথে না থাকে।

ছাকনি

পানি যখন ছাদে জমা হয় তখন এর সাথে দুহসিত পদার্থ মিশে যেতে পারে। থাই ছাকনি ব্যাবহার করা হয় ঐ দূষিত পদার্থ দূর করার জন্য।

ময়লা, আবর্জনা, গাছের পাতা ইত্যাদি পরিষ্কার করার জন্য ছাকনি ব্যাবহার করা হয়। ইট-পাথর বা বলি পরিস্কার করে নিতে হবে ছাকনিতে দেয়ার আগে। 


ছবি ২: ছাকনি

বিভিন্ন ধরনের ছাকনি পাওয়া যায়। তবে সব ছাকনি-ই একই কাজ করে থাকে

১) বলি-পাথর এর ছাকনি

এইটি সবচেয়ে বেশি ব্যাবহার করা হয়। ইট দিয়ে কুপের মত তৈরি করে এর মধ্যে নুড়ি-পাথর ও বলি দিয়ে ভরাট করা হয়। প্রতি তলতে তর্জলি দেয় হয়।

ছবি ৩: বালি পাথরের ছাকনি

কাঠ-কয়লার ছাকনি

এটি বালি-পাথরের ছাকনির মত কিন্তু একটি বেশি উপাদান কাঠ-কোয়েল ব্যবহার করা হয়।

ছবি-৪:  কাঠ-কয়লার ছাকনি

পি বি সি পাইপ ছাকনি।

১ থেকে ১.২ মিটার পি ভি সি   পাইপ দিয়ে এই ছাকনি তৈরি করা যায়। পাইপ এর সাইজ (ব্যাস) ছাদের আয়তনের উপর নির্ভর করে। 1500 বর্গ মিটার এর জন্য 6 ইঞ্চি বয়সের পাইপ যথেষ্ঠ। এরি বেশি হলে 8 ইঞ্চি পাইপ ব্যাবহার করা উচিত। পাইপ তারজালি দিয়ে তিনটি প্রকষ্ঠে ভাগ করা হয়। প্রকষ্ঠের মধ্যে পাথর ও বলি দিয়ে ভরাট করতে হবে। কয়লাও ব্যাবহার করা যেতে পারে। পাইপ এর দুই মাথার ব্যাস কমিয়ে আনতে হবে। এই চকিন আনুভূমিক বা খাড়া ভাবে বসানো যায়।

ছবি ৫: পি বি সি পাইপ ছাকনি

স্পঞ্জ ছাকনি

এটি খুব সহজ এবং বাস বাড়িতে ব্যাবহার করা যায়। ড্রাম এর মধ্যে স্পঞ্জ বিভিন্ন তালাতে দেয়ে হয়। এটি খুব সস্তা এবং সহজে তৈরি করা যায়।

ছবি 6: স্পঞ্জ ছাকনি

2.2 ছাদের পানি ধরার পদ্ধতি সমূহ

বিভিন্ন ভাবে এটি করা যায়। নিচে কিছু উদাহরণ দেয়া হলো।

১) সরাসরি ব্যাবহার এর জন্য পানি ধরা

এই পদ্ধতিতে পানি ছাদের থেকে ট্যাংক এ দেয়া হয়। ট্যাংক এর সাইজ বৃষ্টি,ছাদ ও চাহিদার উপর নির্ভর করে। ট্যাংক এর অবশ্যই অতিরিক্ত পানি বের হওয়ার ব্যবস্থা থাকতে হবে।

পাটাতনের উপর সংগ্রাহক

২)মাটির নিচে পানি পুনরায় ভর্তি করে।

বিভিন্ন কাঠামো তৈরির মাধ্যমে মাটির পানি পুনরায় বাড়ানো যায়। 

ক) কূপ ভর্তি করে

খ) মাটি গর্ত পানি ভরাট করে

গ) শ্যাফ্ট করে

ঘ)কুয়ার মাধ্যমে

ঙ) ট্রেনচ  করে